1. admin@banglarkagoj.net : admin :

শনিবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২০, ১০:৪২ পূর্বাহ্ন

নালিতাবাড়ীতে বিয়ের প্ররোচনায় কিশোরী নিয়ে পালালেন বিয়েপাগল মাদরাসা শিক্ষক

নালিতাবাড়ীতে বিয়ের প্ররোচনায় কিশোরী নিয়ে পালালেন বিয়েপাগল মাদরাসা শিক্ষক

নালিতাবাড়ী (শেরপুর) : বিয়ের প্ররোচনায় ফেলে ক্বওমী মাদরাসা পড়ুয়া ৭ম শ্রেণির কিশোরী এক ছাত্রীকে নিয়ে পালিয়েছে বিয়েপাগল হাফেজি মাদরাসা শিক্ষক মনিরুজ্জামান (৩০)। শেরপুরের নালিতাবাড়ীতে গত বুধবার (৮ জানুয়ারি) মাদরাসায় যাওয়ার পর এ ঘটনা ঘটলেও এখনও সন্ধান মেলনি কিশোরীর।
পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, উপজেলার নাকুগাঁও গ্রামের কিশোরী পার্শ্ববর্তী কালাকুমা ক্বওমী মহিলা মাদরাসার ৭ম শ্রেণিতে পড়াশোনা করত। একই মাদরাসার শিক্ষিকা হাসনারা বেগমের স্বামী আশরাফুল আলমকে বাবা বানায় ওই কিশোরী। এ সম্পর্কের সূত্র ধরে প্রায়ই আলমের বাড়িতে আসা-যাওয়া ছিল ওই ছাত্রীর। গত বুধবার বাড়ি থেকে মাদরাসার উদ্দেশ্যে বেড়ুনোর পর আর বাড়ি ফিরেনি সে। পরে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বানানো বাবা আলমের ছোট ভাই তিন সন্তানের জনক ও ঢাকা-গাজীপুর এলাকার কোন এক হাফেজি মাদরাসার শিক্ষক মনিরুজ্জামান বাড়িতে বেড়াতে এসে বিয়ের প্ররোচণা দিয়ে কিশোরীকে নিয়ে উধাও হয়েছে। পরদিন এ ঘটনায় কিশোরীর পিতা বাদী হয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
এলাকাবাসী জানায়, বিয়েপাগল মনিরুজ্জামান ওরফে জামান এ যাবত মতান্তরে ৪-৬টি বিয়ে করেছে। বর্তমানেও একাধিক স্ত্রী ও তিন সন্তান রয়েছে তার।
মনিরুজ্জামানের পিতা মোকছেদ সুন্সী ওরফে হাঙ্গাইল্যা মুন্সী ছেলের একাধিক বিয়ের কথা স্বীকার করে জানান, একটি বিয়ে তিনি পারিবারিকভাবে করিয়েছেন। বাকীগুলো সম্পর্কের পর এলাকাবাসী ধরে বিয়ে পড়িয়ে দিয়েছে।
নালিতাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বছির আহমেদ বাদল জানান, অভিযোগ পেয়েছি। কিশোরী উদ্ধারের চেষ্টা চলছে। খুব দ্রুত উদ্ধার সম্ভব হবে বলে আশা করছি।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2019 BanglarKagoj.Net
Design & Developed BY ThemesBazar.Com