1. admin@banglarkagoj.net : admin :

রবিবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২০, ০৩:৩২ পূর্বাহ্ন

ঢাকা সিটি নির্বাচন : মাঠের লড়াই আজ শুরু

ঢাকা সিটি নির্বাচন : মাঠের লড়াই আজ শুরু

ঢাকা : ঢাকা সিটি নির্বাচনে আজ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রচারণা শুরু হচ্ছে। প্রতীক নিয়ে ভোটারের ধর্না দেবেন প্রার্থীরা। সকালে প্রতীক বরাদ্দের পর নিয়ম মেনে প্রার্থীরা প্রচার চালাবেন ২৮ জানুয়ারি মধ্যরাত পর্যন্ত। দুই রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে বৈধ ৭৫৮ জন প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ করা হবে।

দুই সিটিতে মেয়র পদে ভোটে লড়বেন ১৩ জন প্রার্থী। দুই সিটি থেকে ২৬৮ জন কাউন্সিলর মনোনয়ন প্রত্যাহার করেছেন। এদের মধ্যে উত্তর থেকে ১২৩ জন এবং দক্ষিণ থেকে ১৪৫ জন মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। ইসির নিয়মানুযায়ী নির্বাচনী প্রচারণায় কোনো মন্ত্রী-এমপি বা সরকারের অতি গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি অংশ নিতে পারবেন না।

উত্তর সিটিতে মেয়র পদে ৬ জন। তারা হলেন আওয়ামী লীগের আতিকুল ইসলাম, বিএনপির তাবিথ আউয়াল, পিডিপির শাহীন খান, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর ফজলে বারী মাসউদ, সিপিবির সাজেদুল হক ও এনপিপির আনিসুর রহমান দেওয়ান।

সাধারণ কাউন্সিলর পদে ২৫১ জন এবং সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৭৭ জন প্রার্থী ভোটে লড়বেন। এই সিটি থেকে সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ১২ জন এবং কাউন্সিলর পদে ১১১ জন মনোনয়ন প্রত্যাহার করেন। সবমিলিয়ে ভোটে লড়বেন ৩৩৪ জন।

দক্ষিণ সিটিতে মেয়র পদে সাতজন লড়বেন। তারা হলেন দক্ষিণে মেয়র পদে প্রার্থীরা আওয়ামী লীগের শেখ ফজলে নূর তাপস, বিএনপির ইশরাক হোসেন, জাতীয় পার্টি-জাপার হাজী মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন, ইসলামী আন্দোলনের মো. আবদুর রহমান, এনপিপির বাহরানে সুলতান বাহার, বাংলাদেশ কংগ্রেসের মো. আকতার উজ্জামান ওরফে আয়াতুল্লা ও গণফ্রন্টের আব্দুস সামাদ সুজন।

দক্ষিণে মেয়র পদে সাতজনসহ ৫৬৯ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন। এদের মধ্যে সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে ৪৬০ জন ও সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে ১০২ জন মনোয়নপত্র জমা দেন। বাছাইয়ে সাধারণ কাউন্সিলর পদে ২৬ জন ও সংরক্ষিত কাউন্সিলরর পদে ২ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়। যদিও দুই সিটিতে আপিলে ২৬ জনের মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা করেন আপিল কর্তৃপক্ষ। ফলে দক্ষিণ সিটিতে সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে ৩৩৫ এবং সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে ৮২ জনসহ তিন পদে ৪২৪ জন প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী রইল।

দুই রিটার্নিং অফিসার জানিয়েছেন, আজ প্রতীক বরাদ্দের পর প্রার্থীরা আইন মেনে প্রচার চালাতে পারবেন। দুপুর ২টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত মাইকিং করে প্রচারণা চালাতে পারবেন। প্রার্থীরা নির্বাচন কমিশনের অনুমতি নিয়ে ক্যাম্প স্থাপন করতে পারবেন। সেখানে শুধু নির্বাচনী প্রচারণা চালানো যাবে। কোনো ধরনের মিছিল, শোডাউন, বড় ধরনের জনসভা, তোরণ নির্মাণ করা যাবে না। অনুমতি সাপেক্ষে পথসভা বা ঘরোয়া সভা করতে পারবেন।

এদিকে ফেসবুক, টুইটারসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোয় প্রার্থীদের প্রচার-প্রচারণা নিয়ে উদ্বিগ্ন কমিশন। কিন্তু আইন না থাকায় এ বিষয়ে এ পর্যন্ত কোন কিছু করণীয় নির্ধারণ করতে পারেনি ইসি।

ঢাকা উত্তর সিটির আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী আতিকুল ইসলাম সকালে প্রতীক বরাদ্দ নিয়ে উত্তরা কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে জুম্মা নামাজের পর সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়, সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় সুশীল সমাজ থেকে শুরু করে সামাজিক-সাংস্কৃতিক প্রতিনিধিদের সাথে মনিপুর বয়েজ স্কুলে মতবিনিময়ে অংশ নেবেন।

অন্যদিকে আজ উত্তর সিটির বিএনপির মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়াল প্রতীক সংগ্রহ করবেন সকাল ৯ টায় রিটার্নিং কর্মকর্তার অফিসে। প্রচারণা শুরু বাদ জুম্মা উত্তরা ৭ নং সেক্টরের ১ নং সড়কের জামে মসজিদে নামাজের পর।

দক্ষিণের আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস রিটার্নিং কার্যালয় থেকে প্রতীক নিয়ে প্রচারণায় অংশ নিবেন।

আর এই সিটিতে বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী ইশরাক হোসেন প্রতীক সংগ্রহ করতে যাবেন রিটার্নিং কর্মকর্তার অফিসে সকাল ৯টা ৩০ মিনিটে। এরপর জুরাইন গোরস্তানে উনার পিতার কবর জিয়ারত করবেন। জাতীয় মসজিদ বাইতুল মাকারামে বাদ জুম্মা নামাজের পর উত্তর গেইট থেকে প্রচারণা শুরু করবেন।

প্রিজাইডিং অফিসারদের প্রশিক্ষণ শুরু কাল: আগামীকাল থেকে দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচন উপলক্ষে প্রিজাইডিং অফিসার, সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার ও পোলিং অফিসারদের প্রশিক্ষণ শুরু হচ্ছে। এদিন সকাল থেকে আগারগাঁওয়ের নির্বাচন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট ভবনে এই প্রশিক্ষণ শুরু হবে। চলবে ২৬ জানুয়ারি পর্যন্ত। দুই সিটিতে প্রায় ১ লাখ প্রিজাইডিং অফিসার, সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার ও পোলিং অফিসারদের প্রশিক্ষণ নেবেন।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2019 BanglarKagoj.Net
Design & Developed BY ThemesBazar.Com