বুধবার, ১৬ জানুয়ারী ২০১৯, ০২:৩৯ অপরাহ্ন

শৌচাগারের অভাবে শ্রীহীন শ্রীপুর স্টেশন

শৌচাগারের অভাবে শ্রীহীন শ্রীপুর স্টেশন

 শ্রীপুর : জয়দেবপুর-ময়মনসিংহ রেলপথের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ শ্রীপুর রেলস্টেশন। প্রতিদিন এই স্টেশনে ৭টি ট্রেন ১৪ বার যাত্রাবিরতি করে। এর মাধ্যমে প্রায় দশ হাজার যাত্রী দেশের বিভিন্ন গন্তব্যে গমন করেন। কিন্তু এসব যাত্রীদের জন্য স্টেশন চত্বরে নেই কোনো শৌচাগার। ফলে যাত্রী ও স্থানীয়রা স্টেশনের আঙিনার খোলা আকাশের নিচেই প্রাকৃতিক কাজ সারতে বাধ্য হচ্ছেন। আর এতে স্টেশন এলাকায় দুর্গন্ধ ছড়িয়ে যাত্রী দুর্ভোগ বাড়ছে।

জানা যায়, বাংলাদেশ রেলওয়ের পূর্বাঞ্চল শাখার অধীন এই স্টেশনটি তৃতীয় শ্রেণির অন্তর্ভুক্ত। শিল্প এলাকাসমৃদ্ধ উপজেলায় এই স্টেশনটির অবস্থান হওয়ায় প্রতিনিয়তই বাড়ছে যাত্রীদের চাপ। যাত্রীদের কথা বিবেচনা করে সরকার ইতোমধ্যে স্টেশন আঙিনায় প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির বিশ্রামাগার ও শৌচাগার নির্মাণ করলেও তা তালাবদ্ধ করে রাখা হয়। ফলে যাত্রীরা তাদের কাঙ্ক্ষিত সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন।

এদিকে যাত্রীরা শৌচাগার ব্যবহারে ব্যর্থ হয়ে স্টেশন আঙিনায় প্রাকৃতিক কাজ করে থাকেন। এতে স্টেশনের পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে। সবচেয়ে বেশি দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে নারী যাত্রীদের।

southeast

শ্রীপুর দক্ষিণপাড়া গ্রামের আহমেদ আলী দীর্ঘ ১৫ বছর এই স্টেশন থেকে যাতায়াত করে আসছেন। তিনি বলেন, এই স্টেশনে যাত্রীদের ন্যূনতম সুবিধা নেই। আমাদের যাদের বাড়ি স্টেশনের কাছে তারা বাড়ি থেকে প্রাকৃতিক কাজ সেরে বের হই, তবে যাদের বাড়ি দূরে তারা অনেক বিপদের মধ্যে পড়েন।

আশপাশে কোনো পাবলিক টয়লেটও নেই। স্টেশনের শৌচাগার ও বিশ্রামাগারও অধিকাংশ সময় বন্ধ থাকে। ফলে স্টেশনের ভেতরেই অনেকে প্রাকৃতিক কাজকর্ম সারেন, এতে প্রকট দুর্গন্ধে স্টেশন এলাকার পরিবেশ ভারী হয়ে আসে। খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে শ্রীপুর রেল স্টেশনে একটি শৌচাগার নির্মাণের দাবি জানান তিনি।

southeast

এ বিষয়ে রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার হারুন অর রশিদ জানান, এই সড়কে চলাচলকারী সকল রেলেই খুব ভিড় থাকে। ছাদে যাতায়াতকারী যাত্রীরা ভিড়ের কারণে ট্রেনের শৌচাগার ব্যবহার না করে, ছাদ থেকে নেমে স্টেশনের ভেতরে প্রাকৃতিক কাজ সেরে থাকেন। বিশ্রামাগার ও শৌচাগার বিভিন্ন সময় যাত্রীদের কথা বিবেচনা করে খোলা হয়। কিন্তু সর্বক্ষণ খোলা রাখলে সকলেই ব্যবহার করে থাকে।

তবে যাত্রীদের কথা বিবেচনা করে ইতোমধ্যেই সুপেয় পানির ব্যবস্থা ও রেলওয়ে আঙিনায় শৌচাগার স্থাপনের বিষয়ে কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন..

© All rights reserved © 2018 BanglarKagoj.Net
Design & Developed BY ThemesBazar.Com