সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৪:১৮ পূর্বাহ্ন

‘দুর্নীতিতে অধিকাংশ ক্ষেত্রে চুনোপুঁটিরা সম্পৃক্ত’

‘দুর্নীতিতে অধিকাংশ ক্ষেত্রে চুনোপুঁটিরা সম্পৃক্ত’

ঢাকা : দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেছেন, দুর্নীতিতে অধিকাংশ ক্ষেত্রে চুনোপুঁটিরাই সম্পৃক্ত থাকেন। এর ফলে দেশের প্রায় ৮০ শতাংশ মানুষ দুর্নীতির কারণে কোনো না কোনোভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হন।

শনিবার রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘দুর্নীতি দমনে আইনজীবী ও বিচার বিভাগের ভূমিকা’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশ এ সেমিনারের আয়োজন করে।

ইকবাল মাহমুদ বলেন, দেশের সাধারণ মানুষ যারা গ্রামে বাস করেন তারাই দুর্নীতি, হয়রানি কিংবা অনিয়মের সবচেয়ে বড় শিকার। এসব দুর্নীতিতে অধিকাংশ ক্ষেত্রে চুনোপুঁটিরাই সম্পৃক্ত থাকেন। ফলে দেশের প্রায় ৮০ শতাংশ মানুষ দুর্নীতির কারণে কোনো না কোনোভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হন। তাদের কল্যাণেই চুনোপুঁটিদের আইনের আওতায় আনতে হচ্ছে এবং তা অব্যাহত রাখা হবে। তবে এ কথা দৃঢ়ভাবে বলতে পারি, শুধু চুনোপুঁটি নয়, রাঘব বোয়ালদেরও আইনের আওতায় আনা হচ্ছে এবং আরো আনা হবে। অনেক প্রভাবশালী রাজনৈতিক নেতা, বিত্তবান ব্যবসায়ী কিংবা উচ্চ পদে আসীন অনেক আমলার বিষয়েও দুদক অনুসন্ধান, তদন্ত কিংবা প্রসিকিউসন করছে।

তিনি বলেন, আমাদের সমস্যা- আমরা যেটা বলি সেটা বিশ্বাস করি না, যেটা করি সেটা বলি না। এ এক অদ্ভুত নিগড়ে আমরা বন্দি। এই নিগড় ভাঙতে হলে তরুণ প্রজন্ম, বিশেষ করে ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের নৈতিক মূল্যবোধসম্পন্ন শিক্ষা ও মননে বিকশিত করে উন্নত মানসিকতাসম্পন্ন একটি প্রজন্ম সৃষ্টি করতে হবে।

দুদকের চেয়ারম্যান বলেন, দুদকের সক্ষমতার ঘাটতি রয়েছে, এটা স্বীকার করতে আমি বিব্রত নই। কমিশনের চেয়ারম্যান হিসেবে আমার কাছে যেসব নথি উপস্থাপতি হয় তার অধিকাংশেই বিভিন্ন ত্রুটি-বিচ্যুতি পরিলক্ষিত হয়। পুরোপুরি সক্ষমতা থাকলে আমার পর্যায়ে যেসব নথি আসে তাতে কোনো ত্রুটি থাকার কথা নয়। আমি যোগদান করেই বলেছিলাম, অভিযোগের অনুসন্ধান বা তদন্তে টাইমলাইন অনুসরণ করতে হবে। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনক হলেও সত্য, টাইমলাইন যথাযথভাবে অনুসরণ করা হচ্ছে না। যদি তদন্তেই ত্রুটি থাকে তাহলে বিজ্ঞ আইনজীবী কিংবা সম্মানিত বিচারকদের পক্ষে অপরাধীদের আইনের আওতায় আনা দুরুহ হয়ে পরে।
সভাপতির বক্তব্যে হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ বলেন, মানুষ বিশ্বাস করে, দুদক চুনোপুঁটিদের ব্যাপারে কঠোর। বিরোধী রাজনীতিকদের প্রতিও তারা কঠোর। পক্ষান্তরে সরকারি দলের প্রতি তারা দুর্বল।

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন..

© All rights reserved © 2018 BanglarKagoj.Net
Design & Developed BY ThemesBazar.Com