শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৬:৪৪ পূর্বাহ্ন

রেলের শিডিউল বিপর্যয় : টিকিট ফেরত দিতে পারবেন যাত্রীরা

রেলের শিডিউল বিপর্যয় : টিকিট ফেরত দিতে পারবেন যাত্রীরা

বাংলার কাগজ ডেস্ক : ইট-পাথর আর কংক্রিটের শহর ছেড়ে নাড়ির টানে বাড়ি ফিরছেন রাজধানীবাসী। যাত্রার নিত্য ভোগান্তির সঙ্গে এবার নতুন করে যুক্ত হয়েছে ট্রেনের সীমাহীন শিডিউল বিপর্যয়। এতে ব্যাপক বিড়ম্বনায় পড়েছেন ঈদে ঘরমুখো যাত্রীরা।

গতকাল (শুক্রবার) টাঙ্গাইলে বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্ব প্রান্তে ঢাকা থেকে খুলনাগামী সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের একটি বগি লাইনচ্যুত হয়। এতে বঙ্গবন্ধু সেতুতে ট্রেন চলাচল সাময়িকভাবে বন্ধ হয়ে যাওয়ায় ঘরে ফেরা মানুষের ঈদযাত্রায় চরম ভোগান্তি দেখা দিয়েছে। শুক্রবার বেলা পৌনে ২টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। সাড়ে তিন ঘণ্টা পর উত্তরাঞ্চল ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের রেল চলাচল চলাচল শুরু হয়। সেই প্রভাব ওই রুট ব্যবহার করা সব ট্রেনে পড়ে। যার ফলে বিলম্বের শিকার হয় ওই ট্রেনগুলো। এই ট্রেনগুলো বিভিন্ন গন্তব্যসহ ঢাকায় পৌঁছাতে এবং ছেড়ে যেতে দেরি হয়।

যার ফলে ঈদযাত্রার চতুর্থ দিনে এসে কমলাপুর রেলস্টেশন থেকে পশ্চিমাঞ্চলের গুরুত্বপূর্ণ ট্রেনগুলো দেরিতে ছাড়বে। এসব ট্রেনের কোনোটি ৬, ৮, ১০ ও ১২ ঘণ্টা বিলম্বে ছেড়ে যাবে। যাত্রীদের এই বিড়ম্বনা ‘লাঘবে’ নতুন সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। এতে করে যেকোনো যাত্রী ইচ্ছে করলেই বিলম্ব হওয়া ট্রেনের টিকিটগুলো জমা দিয়ে পুরো টাকা ফেরত নিতে পারবেন।

শনিবার কমলাপুর রেলস্টেশনে যাত্রীদের উদ্দেশ্যে এ তথ্য মাইকে প্রচার করছে স্টেশন কর্তৃপক্ষ। সেখানে বলা হয়, আজকের বিলম্ব হওয়া ট্রেনগুলোর যাত্রীরা স্টেশনে টিকিট জমা দিয়ে পুরো টাকা ফেরত নিতে পারবেন। স্টেশনের ১ থেকে ৬ নম্বর কাউন্টারে এই টিকিট ফেরত নেওয়া হচ্ছে।

train

শনিবার কমলাপুর রেলস্টেশনে রাখা ডিসপ্লেতে দেওয়া ট্রেনের সময়সীমা অনুযায়ী, রাজশাহীগামী ধুমকেতু এক্সপ্রেস ট্রেনটি সকাল ৬ টায় ছাড়ার কথা থাকলেও ট্রেনটি ৮ ঘণ্টা ৩০ মিনিট দেরিতে আনুমানিক বেলা ২টা ৩০ মিনিটে ছেড়ে যাবে। খুলনাগামী সুন্দরবন এক্সপ্রেস সকাল ৬টা ২০ মিনিটের ট্রেনটি আনুমানিক দেড়টায় ছেড়ে যাবে। চিলাহাটিগামী নীলসাগর এক্সপ্রেস ট্রেনটি সকাল ৮টায় ছেড়ে যাওয়ার কথা থাকলেও এটি ছাড়বে বিকেল সাড়ে ৪টায়। রংপুরগামী রংপুর এক্সপ্রেস ট্রেনটি সকাল ৯ টায় ছাড়ার কথা থাকলেও ছাড়বে রাত ৯টায়।

এদিকে পঞ্চগড়গামী একতা এক্সপ্রেস ট্রেনটি সকাল ১০টায় ছাড়ার কথা থাকলেও এটি দুপুর ১২টায় কমলাপুর ছেড়ে যায়।

এদিকে ১ থেকে ৬ নম্বর কাউন্টারে গিয়ে যাত্রীদের টিকিট ফেরত দেওয়ার তেমন একটা ভিড় দেখা যায়নি।

কমলাপুর স্টেশন ম্যানেজার আমিনুল ইসলাম বলেন, ‘গতকাল টাঙ্গাইলে বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্ব প্রান্তে ঢাকা থেকে খুলনাগামী সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের একটি বগি লাইনচ্যুত হয়। এই কারণে দীর্ঘ সময় ট্রেন চলাচল বন্ধ ছিল। ফলে এই প্রভাব ওই রুট ব্যবহারকারী সব ট্রেনের ওপর পড়েছে। যে কারণে ট্রেনগুলোর শিডিউল ঠিক নেই।’

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন..

© All rights reserved © 2018 BanglarKagoj.Net
Design & Developed BY ThemesBazar.Com