রবিবার, ১৮ অগাস্ট ২০১৯, ১১:৪৩ পূর্বাহ্ন

নালিতাবাড়ীতে উসন এর সংবর্ধনা অনুষ্ঠান : “খালি হাতে ফিরে গেল ২৬ কৃতি শিক্ষার্থী”

নালিতাবাড়ীতে উসন এর সংবর্ধনা অনুষ্ঠান : “খালি হাতে ফিরে গেল ২৬ কৃতি শিক্ষার্থী”

নালিতাবাড়ী (শেরপুর) : সংবর্ধনা দিতে আহবান করা হয় ২০১৮ সালের এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ প্রাপ্ত কৃতি শিক্ষার্থীদের। যথারীতি অনুষ্ঠানে যোগ দিলেও মঞ্চে না ডেকে কোনপ্রকার সম্মাননা না দিয়ে খালি হাতে ফিরিয়ে দেওয়া হলো ২৬ শিক্ষার্থীকে। তবে কর্তৃপক্ষ বলছে, দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে ভুলবশত এমন ঘটনা ঘটেছে। অন্য সবাইকে সম্মাননা দেওয়া হয়েছে।
১৩ আগস্ট মঙ্গলবার এমন ঘটনা ঘটে শেরপুরের নালিতাবাড়ীতে ইউনিভার্সিটি স্টুডেন্টস অর্গানাইজেশন অব নালিতাবাড়ী (উসন) এর অনুষ্ঠানে। এমন ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সংবর্ধনা বঞ্চিত শিক্ষার্থীরা।
জানা গেছে, ইউনিভার্সিটি স্টুডেন্টস অর্গানাইজেশন অব নালিতাবাড়ী (উসন) অতীতের ধারাবাহিকতায় ১৩ আগস্ট মঙ্গলবার (ঈদ-উল-আযহা’র) পরদিন শহরের শহীদ মুক্তিযোদ্ধা মঞ্চে এক আলোচনা সভা, ঈদ পুনর্মিলনী, কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা ও মাদকবিরোধী কনসার্ট এর আয়োজন করে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব আব্দুস সামাদ ফারুক, উদ্বোধক হিসেবে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোকছেদুর রহমান লেবু এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফুর রহমানকে রাখা হয়। বিকেলে উসন এর আহবায়ক তানবীর আহম্মেদ রুবেল এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠান শুরু হয়। আলোচনা পর্ব শেষ করে ৭০জন কৃতি শিক্ষার্থীকে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। পরে রাত সাড়ে আটটার দিকে প্রথম পর্বের সমাপনি ঘোষণা করা হয়।
এদিকে অনুষ্ঠানের প্রথম পর্ব সমাপনি ঘোষণা দেওয়ার পর প্রধান অতিথিসহ অন্যান্য উল্লেখযোগ্য অতিথি অনুষ্ঠানস্থল থেকে বিদায় নেন। এসময় উসন কর্তৃক সংবর্ধনার জন্য ডেকে আনা ২০১৮ সালের এসএসসি পরীক্ষায় তারাগঞ্জ সরকারী পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় থেকে উত্তীর্ণ জিপিএ-৫ প্রাপ্ত ২৬জন শিক্ষার্থী তাদের নাম আহবান না করায় এবং সংবর্ধনা প্রদান না করায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন। একপর্যায়ে উসন কর্তৃপক্ষ সমাপনি মঞ্চে তাদের আহবান করে নাম ঘোষণা করেন। তবে কোনপ্রকার সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়নি। এতে সংবর্ধনা নিতে আসা ২৬ শিক্ষার্থী মনে ক্ষোভ ও ডেকে এনে অপমানের দুঃখ নিয়ে বাড়ি ফিরে যায়।
সংবর্ধনা নিতে এসে ফিরে যাওয়া শিক্ষার্থী মুস্তাইন বিল্লাহ সায়েল জানান, উসন কর্তৃক তাদের সংবর্ধনা দিতে ডেকে আনা হয়। যথারীতি তারা অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে কাজও করে। কিন্তু তাদের নাম আহবান না করে এবং সংবর্ধনা না দিয়েই অনুষ্ঠানের প্রথম পর্ব সমাপনি ঘোষণা করা হয়। এতে তারা ক্ষোভ প্রকাশ করলে পরবর্তীতে মঞ্চে আহবান করা হলেও সম্মাননা প্রদান করা হয়নি।
নাম প্রকাশের অনিচ্ছুক এক শিক্ষার্থী জানান, আমরা প্রতিবাদের পর তারা মঞ্চে ডেকে নিয়ে যায়। কিন্তু সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান না করে বলা হয় পরবর্তীতে পাঠিয়ে দেওয়া হবে। আমার কথা হলো, বাড়িতে বসে ক্রেস্ট নিয়ে কি করব? এটাতো আর সম্মাননা প্রদান করা হলো না। অতিথিদের হাত থেকে সম্মাননা নিতে পারার মাঝে আলাদা তৃপ্তি আছে। অভিজিৎ দাস, মাহফুজুল হক শিক্ষার্থী মুইনসহ সম্মাননা বঞ্চিত অন্যান্য শিক্ষার্থীদের অভিমত একই।
এ বিষয়ে উসন এর যুগ্ম-আবহায়ক হারুন-অর-রশিদ জানান, ভুলবশত তাদের নাম বাদ পড়েছিল। পরবর্তীতে নাম ডেকে মঞ্চে আনা হয়। আর সম্মাননা ক্রেস্ট সময়মতো সবগুলো হাতে না পৌছায় কিছু কম পরে। এর ফলে সবাইকে দিতে পারিনি। পরবর্তীতে তাদের হাতে পৌছে দেওয়া হবে। তবে তিনি কৃতি শিক্ষার্থীদের দিয়ে কাজ করানোর বিষয়টি অস্বীকার করে জানান, কোন শিক্ষার্থীকে আমরা স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে কাজে লাগাইনি। এসময় তিনি বাদ সম্মাননা পড়া শিক্ষার্থীর পরিমাণ ১৩ জন বলে দাবী করেন।
উসন এর আহবায়ক তানভীর আহম্মেদ রুবেল জানান, দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে অতিথিদের দ্রুত বিদায় জানাতে গিয়ে ভুলবশত কয়েক জনের নাম বাদ পড়ে যায়। কিন্তু এর আগে ৭০ জন কৃতি শিক্ষার্থীর মাঝে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। তিনি আরও বলেন, মোট তিন কার্টন ক্রেস্ট অর্ডার করা ছিল। ভুলবশত এক কার্টন না আসায় কিছু শিক্ষার্থী বাদ পড়েছে। পরবর্তীতে তাদের হাতে পৌছে দেওয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন..

© All rights reserved © 2018 BanglarKagoj.Net
Design & Developed BY ThemesBazar.Com