সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০২:২৬ পূর্বাহ্ন

ছাত্রদলের কাউন্সিল : বিক্রি শতাধিক ফরম, জমা দিয়েছেন ৭৫ জন

ছাত্রদলের কাউন্সিল : বিক্রি শতাধিক ফরম, জমা দিয়েছেন ৭৫ জন

রাজনীতি ডেস্ক : বিএনপির সহযোগী সংগঠন ছাত্রদলের শীর্ষ দুই পদের বিপরীতে শতাধিক মনোনয়নপত্রের ফরম বিক্রি হলেও জমা পড়েছে ৭৫টি। তাদের মধ্যে সভাপতি পদে ২৭ জন এবং সাধারণ সম্পাদক পদে দুই নারীসহ ৪৮ জন মনোনয়নপত্রের ফরম জমা দিয়েছেন। তবে সংশ্লিষ্টরা বলছেন, যাচাই-বাছাইয়ে অনেকেই বাদ পড়তে পারেন।

মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) বিকেল ৪টা পর্যন্ত নয়াপল্টনে বিএনপি কার্যালয়ে মনোনয়ন ফরম জমা নেয়া হয়। এর আগে গত ১৭ ও ১৮ আগস্ট ছাত্রদলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচনে অংশ নিতে ১১০ জন মনোনয়নপত্র ফরম সংগ্রহ করেন।

তিনি জানান, এবার সাধারণ সম্পাদক পদে দুই নারী মনোনয়নপত্রের ফরম জমা দিয়েছেন। তারা হলেন- বদরুন্নেসা কলেজের নাদিয়া পাঠান পাবন এবং বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ডালিয়া রহমান।

সভাপতি প্রার্থী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের সহ-সভাপতি সাজিদ হাসান বাবু বলেন, ‘আধুনিক বাংলাদেশের রূপকার শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের স্বপ্নের বাংলাদেশের লুণ্ঠিত গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনা, গণতন্ত্রের মাতা আপোষহীন নেত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি আন্দোলন গতিশীল এবং দেশ নায়ক তারেক রহমানের হাতকে শক্তিশালী করাই আমার লক্ষ্য।’

তিনি আরও বলেন, ‘দেশ নায়ক তারেক রহমানের নির্দেশে ছাত্রদলের কাউন্সিল হতে যাচ্ছে। এ কাউন্সিলের মাধ্যমে ছাত্রদলের সর্বস্তরের নেতাকর্মীরা ছাত্র রাজনীতিতে একটা ইতিবাচক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করবে। আগামীর ছাত্রদল হবে আরও গতিশীল। সাধারণ ছাত্র-ছাত্রী তথা জাতীয় স্বার্থে অতীতের ছাত্রনেতাদের মত অগ্রভাগে থাকবে। সকল গণতান্ত্রিক আন্দোলনের অগ্রভাগে থাকার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করে আমি ছাত্রদলের সভাপতি প্রার্থী হয়েছি।’

সভাপতি পদে আরেক প্রার্থী সদ্য বিলুপ্ত কেন্দ্রীয় কমিটির সহ বৃত্তি ও ছাত্র কল্যাণ সম্পাদক মাহামুদুল হাসান বাপ্পী বলেন, ‘ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটি গঠনের জন্য যে ক্রাইটেরিয়া নির্ধারণ করা হয়েছে এ কারণে দেশ নায়ক তারেক রহমান এবং ছাত্রদলের সাবেক নেতাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। জ্ঞান হওয়ার পর থেকেই শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে এ সংগঠনের পতাকাতলে থেকেছি। ছাত্রদলের সকল কর্মকাণ্ডে সক্রিয় থেকেছি। এ জন্য বিভিন্ন সময়ে আমাকে কারাবরণ করতে হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘সার্বিক দিক বিবেচনা করে ছাত্রদলের সভাপতি প্রার্থী হিসেবে নিজেকে যোগ্য মনে করছি। সম্মানিত কাউন্সিলররা আমাকে সভাপতি নির্বাচিত করলে দেশ নায়ক তারেক রহমানের নির্দেশনায় ছাত্রদলকে আমি সুসংগঠিত করব। দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি আন্দোলন এবং গণতন্ত্র পুণরুদ্ধারের আন্দোলনকে ত্বরান্বিত করার জন্য জীবন বাজি রাখব।’

সভাপতি পদে নির্বাচনে অংশ নিতে অন্যদের মধ্যে মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছেন সাবেক তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সহসম্পাদক মামুন খান। তিনি বলেন, ‘ভোটাররা যাকে যোগ্য মনে করবেন, তাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবেন।’

ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক পদপার্থী হয়েছেন সংগঠনটির ডাকসু নির্বাচনে ভিপি পদে মনোনয়ন পাওয়া মোস্তাফিজুর রহমান। জাগো নিউজকে তিনি বলেন, ‘ছাত্র সমাজকে শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ১৯ দফার আলোকে দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধকরণ, বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি, গণতন্ত্র পুণরুদ্ধার ও জনগণের ভোটাধিকার ফিরিয়ে দেয়া এবং দেশ নায়ক তারেক রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন আন্দোলনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল যেন কার্যকর ভূমিকা পালন করতে পারে সেই লক্ষ্যে কাজ করতে চাই। যে কারণে আমি ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক পদপার্থী প্রার্থী হয়েছি।’

সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচনে অংশ নিতে মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু তাহের। তিনি বলেন, ‘আশা করি এবারের কাউন্সিলের মধ্য দিয়ে খালেদা জিয়ার মুক্তি আন্দোলন জোরদার করার মতো নেতৃত্ব বেরিয়ে আসবে।’

সাধারণ সম্পাদক পদের আরেক প্রার্থী আমিনুর রহমান আমিন বলেন, ‘সাংগঠনিকভাবে সক্ষম প্রার্থীদের কাউন্সিলররা ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবেন বলে আমি আশা করি।’

সভাপতি পদে মনোনয়পত্র জমা দিয়েছেন যারা- আজিম উদ্দিন মেরাজ, মো. ইলিয়াস, হাফিজুর রহমান, কাজী রওনকুল ইসলাম শ্রাবন, সাজিদ হাসান বাবু, আল মেহেদি তালুকদার, মাহমুদুল হাসান বাপ্পি, তানভীর রেজা রুবেল, মো. এরশাদ খান, এবিএম মাহমুদ আলম, মো. আসাদুল আলম টিটু, এম আরজ আলী শান্ত, মো. সুরুজ মন্ডল, মো. আবদুল মাজেদ, মাইনুল ইসলাম, মো. ফজলুর রহমান, আশরাফুল আলম ফকির লিংকন, মুহাম্মদ ফজলুল হক নিরব, আরাফাত বিল্লাহ খান, এসএম আল আমিন, মো. জুয়েল মৃধা, আবদুল হান্নান, মো. শামীম হোসেন, মো. মামুন খান, এসএএম আমিরুল ইসলাম, সুলায়মান হোসাইন ও আল আমিন কাউছার।

সাধারণ সম্পাদক পদে মনোনয়পত্র জমা দিয়েছেন যারা
রিয়াজ মোহাম্মদ ইকবাল হোসাইন, মো. ওমর ফারুক শাকিল চৌধুরী, সিরাজুল ইসলাম, সাজ্জাদ হোসেন রুবেল, সাইফ মাহমুদ জুয়েল হাওলাদার, আবদুল মান্নান, নাদিয়া পাঠান পাপন, ডালিয়া রহমান, এবিএম বাকির জুয়েল, মিজানুর রহমান শরীফ, মো. ওমর ফারুক, মো. হাসান (তানজিল হাসান), মো. আলাউদ্দিন খান, রাশেদ ইকবাল খান, আমিনুর রহমান, ইকবাল হাসান শ্যামল, ইমদাদুল হক মজুমদার, মো. নাইম হাসান, কেএম সাখাওয়াত হোসেন, শাহনেওয়াজ, এএএম ইয়াহইয়া, সোহেল রানা, মোহাম্মদ কারীমুল হাই নাঈম, মো. মহিনউদ্দীন রাজু, আরিফুল হক।

মো. রাকিবুল ইসলাম রাকিব, মোস্তাফিজুর রহমান, মো. আসাদুজ্জামান রিংকু, মো. আবুল বাশার, মো. মিজানুর রহমান সজীব, মো. জুলহাস উদ্দিন, মো. মিজানুর রহমান, মো. জাকিরুল ইসলাম জাকির, সাদিকুর রহমান সাদিক, আবদুল মোমেন মিয়া, কাজী মাজাহারুল ইসলাম, মো. আজিজুল হক সোহেল, শেখ মো. মশিউর, মো. জামিল হোসেন, শেখ আবু তাহের, মো. তবিবুর রহমান সাগর, মাজেদুল ইসলাম, মাহমুদুল আলম শাহিন, মো. জোবায়ের আল মাহমুদ রিজভী, নাজমুল হক হাবীব, মো. জহিরুল ইসলাম (দিপু পাটোয়ারি), আনিসুর রহমান সুমন, এম এম বাবুল আক্তার শান্ত ও মুন্সি আনিসুর রহমান।

ছাত্রদলের নির্বাচন পরিচালনা কমিটি জানায়, ছাত্রদলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদের মনোনয়ন ফরম বাছাই চলবে ২২ থেকে ২৬ আগস্ট পর্যন্ত। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ৩১ আগস্ট এবং চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করা হবে ২ সেপ্টেম্বর। প্রার্থীরা প্রচার চালাতে পারবেন ৩ সেপ্টেম্বর থেকে ১২ সেপ্টেম্বর মধ্য রাত পর্যন্ত।

১৪ সেপ্টেম্বর সকাল ১০টা থেকে ২টা পর্যন্ত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। ভোটে অংশ নেবেন সংগঠনটির সারাদেশের ১১৭টি ইউনিটের ৫৮০ জন কাউন্সিলর।

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন..

© All rights reserved © 2018 BanglarKagoj.Net
Design & Developed BY ThemesBazar.Com