সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০২:৫০ পূর্বাহ্ন

বান্দরবানে ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও সেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলন ঘোষণা 

বান্দরবানে ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও সেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলন ঘোষণা 

বান্দরবান : মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়ায় বান্দরবান জেলা ছাত্রলীগ জেলা যুবলীগ জেলা সেচ্ছাসেবক লীগ ও জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন ঘোষনা করা হয়েছে। জেলা আওয়ামী লীগের এক জরুরী সভায় এ ঘোষণা দেয়া হয়। সম্মেলন সম্পন্ন করার জন্য জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দের সমন্বয়ে প্রস্তুতি কমিটিও ঘোষণা করা হয়েছে। দীর্ঘ দিন পর সম্মেলন এর ঘোষনা দেয়ায় নেতাকর্মীদের মাঝেও উচ্ছাস দেখা দিয়েছে।
তবে সম্মেলনের নির্ধারিত কোন তারিখ ঘোষনা না হলেও আগামী ২ মাসের মধ্যে জেলা ছাত্রলীগ ও যুবলীগের সম্মেলন নভেম্বর মাসের মধ্যে সেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলন ও ডিসেম্বর মাসের মধ্যে জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন শেষ করার কথা বলা হয় বৈঠকে।
জানা গেছে, বৈঠকে জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সব নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বৈঠকে উপস্থিত কয়েকজন নেতা বলেন, আগামী ৩ মাসের মধ্যে সবগুলো কমিঠি গঠনের নির্দেশ দেয়া হয়। এ লক্ষ্যে আওয়ামী লীগের নেতাদের সমন্বয়ে সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটিও গঠন করা হয়। ছাত্রলীগের সম্মেলন সম্পন্ন করতে জেলা আওয়ামী লীগ নেতা সাবেক ছাত্রলীগের সভাপতি শামসুল ইসলামকে আহবায়ক ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক প্রশান্ত বড়–য়াকে সদস্য সচিব যুবলীগে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জেলা পরিষদ সদস্য মোজাম্মেল হক বাহাদুরকে আহবায়ক ও জেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি আব্দুল হককে সদস্য সচিবের দায়িত্ব দেয়া হয়। সেচ্ছাসেবক লীগে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক পৌর কাউন্সিলর অজিত দাশকে আহবায়ক ও জেলা আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক আবুল কালাম মুন্নাকে সদস্য সচিব করা হয়। জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন প্রস্ততি কমিটিতে আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য শফিকুর রহমানকে আহবায়ক ও জেলা পরিষদের সদস্য ক্য সা প্রু কে সদস্য সচিব করা হয়। এসব আহবায়ক কমিটিতে স্ব স্ব সংগঠনের সভাপতি সম্পাদককে যুগ্ম আহবায়ক ও সদস্য হিসেবে অন্তর্ভূক্ত করার কথাও বলা হয়। আহবায়ক কমিটিকে আগামী ৩ মাসের মধ্যে সম্মেলনের আয়োজন করার নির্দেশ দেয় জেলা আওয়ামী লীগ। এর মধ্যে মেয়াদত্তোর্ণী বিভিন্ন থানা পৌর কমিটির সম্মেলন সম্পন্ন করার কথাও বলা হয় বৈঠকে।
এছাড়াও সংগঠন থেকে বিভিন্ন সময়ে বহিস্কার হওয়া কোন নেতা কর্মী সম্মেলনে অংশ নিতে পারবে না বলেও বৈঠকে জানানো হয়।
জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইসলাম বেবী বলেন, ছাত্রলীগ যুবলীগসহ বেশিরভাগ সহযোগী সংগঠনের মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়েছে অনেক দিন ধরে। সম্মেলন না হওয়ার কারনে নতুন নেতৃত্ব সৃষ্টি হয়নি। সঠিক সময়ে সম্মেলন না হওয়ার কারনে অনেক নেতা বাদ পড়ে গেছে। দলকে চাঙ্গা করার লক্ষ্যে মেয়াদোত্তীর্ণ সব কমিটি নতুনভাবে করা হবে। কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সম্মেলনের আগেই সব কমিটি করা হবে। নির্বাচনসহ বিভিন্ন কারনে সম্মেলন না হওয়ায় নতুন নেতৃত্ব তৈরি হচ্ছে না। তাই নতুন নেতৃত্ব সৃষ্টির লক্ষ্যে প্রত্যেকটা মেয়াদোউত্তীর্ণ কমিটি নতুন করে গঠন করা হবে। তারিখ এখনো নির্ধারণ করা হয়নি। তবে ২ মাসের মধ্যে সব কমিটি গঠন করা হবে। ডিসেম্বরের মধ্যে জেলা আওয়ামী লীগের কমিটিও গঠন করা হবে।
– এন এ জাকির
Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন..

© All rights reserved © 2018 BanglarKagoj.Net
Design & Developed BY ThemesBazar.Com