শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৯, ১১:৪৬ পূর্বাহ্ন

ইলিশ ধরতে বাধা দেয়ায় গোলাগুলি, বিএসএফ সদস্য নিহত

ইলিশ ধরতে বাধা দেয়ায় গোলাগুলি, বিএসএফ সদস্য নিহত

রাজশাহী : রাজশাহীর পদ্মা নদীতে ইলিশ শিকারের সময় ভারতীয় এক জেলেকে আটক করাকে কেন্দ্র করে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সঙ্গে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এতে বিএসএফের এক সদস্য নিহত ও আরেক সদস্য আহত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে রাজশাহীর চারঘাট উপজেলা সদরের বালুঘাট সীমান্ত এলাকায় পদ্মা ও তার শাখা বড়াল নদীর মোহনায় গোলাগুলির এ ঘটনা ঘটে।

চারঘাট মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুমিত কুমার সাংবাদিকদের এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেছেন, বিজিবির সঙ্গে বিএসএফের গোলাগুলিতে এক বিএসএফ সদস্য নিহত ও আরেক সদস্য আহত হয়েছেন।

নিহত বিএসএফ সদস্যের নাম বিজয়ভান সিং। আহত রাজবীর যাদব মুর্শিদাবাদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

ওসি সুমিত কুমার বলেন, ভারতীয় জেলে আটকের ঘটনাটি নিয়ে বিকেল ৪টার দিকে বিজিবি ও বিএসএফ কমান্ডার পর্যায়ের পতাকা বৈঠকের কথা ছিল। কিন্তু বিকেল ৫টা ৪০ মিনিটে পতাকা বৈঠকে উপস্থিত হয় বিএসএফ। সেখানে এসব বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে। আলোচনায় কি হয়েছে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানাবে বিজিবি।

এ বিষয়ে জানতে যোগাযোগ করা হলে বিজিবির অতিরিক্ত মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল খন্দকার ফরিদ হাসান বলেন, গোলাগুলির খবর শুনেছি আমরা। বিষয়টি আনুষ্ঠানিকভাবে জানানো হবে।

এদিকে, ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফের বরাত দিয়ে বিবিসি বাংলা জানায়, বৃহস্পতিবার মুর্শিদাবাদ জেলার সীমান্তে পদ্মা নদীতে মাছ ধরতে যাওয়া কয়েকজন ভারতীয় জেলেকে আটক করে বিজিবি। খবর পেয়ে সেখানে গেলে বিজিবির সঙ্গে বিএসএফের গোলাগুলির ঘটনা ঘটে।

তবে ভারতীয় গণমাধ্যম বলছে, মুর্শিদাবাদের জলঙ্গীর চর পাইকমারির জিরো পয়েন্টে বিএসএফের সঙ্গে বিজিবির গোলাগুলির ঘটনায় গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যু হয় এক বিএসএফ সদস্যের। তার নাম বিজয় ভান সিং। সেখানে গুলিবিদ্ধ হয়ে মুর্শিদাবাদ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বিএসএফ সদস্য রাজবীর যাদব।

এ নিয়ে এখনো বিজিবির পক্ষ থেকে কিছু জানানো হয়নি। বিকেলে বিজিবি-বিএসএফ বৈঠকের আগে বিজিবির রাজশাহীর ব্যাটালিয়ন-১ এর অতিরিক্ত পরিচালক মেজর আসিফ বুলবুল বলেন, ভারতীয় এক জেলেকে আটক করেছে বিজিবি। বিএসএফের সদস্য নিহত হওয়ার কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

চারঘাট উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা আরিফুল ইসলাম বলেন, প্রজনন মৌসুমের জন্য এখন নদীতে ইলিশ শিকারে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। এ অবস্থায় জেলেরা যেন নদীতে ইলিশ শিকার করতে না পারে সেজন্য বিজিবি সদস্যদের নিয়ে বৃহস্পতিবার সকালে নদীতে অভিযান চালানো হয়।

অভিযানের সময় পদ্মা-বড়ালের মোহনায় বাংলাদেশের সীমানার ভেতর একটি নৌকায় তিন ভারতীয় জেলেকে ইলিশ শিকার করতে দেখা যায়। তখন তাদের আটকের চেষ্টা করা হয়। এ সময় দুজন জেলে পালিয়ে যান। একজনকে আটক করা হয়।

পালিয়ে যাওয়া জেলেরা বিএসএফকে বিষয়টি জানান। তখন বিএসএফ সদস্যরা এসে গালাগালি শুরু করেন। বিজিবি এর প্রতিবাদ করলে তারা গুলি ছোড়ে। তখন বিজিবির পক্ষ থেকেও গুলি ছোড়া হয়। একপর্যায়ে বিএসএফ সদস্যরা পিছু হটেন। এ ঘটনার পর একজন ভারতীয় জেলেকে আটক করে বিজিবির চারঘাট করিডোর সীমান্ত ফাঁড়িতে আনা হয়। সেই সঙ্গে ইলিশ শিকারের জাল জব্দ করা হয়।

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন..

© All rights reserved © 2018 BanglarKagoj.Net
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!