1. banglarkagoj@gmail.com : admi2018 :

শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৩:৩৪ অপরাহ্ন

আ.লীগের উপদেষ্টা হওয়ার চিঠি পেলেন জয়নাল হাজারী

আ.লীগের উপদেষ্টা হওয়ার চিঠি পেলেন জয়নাল হাজারী

রাজনীতি ডেস্ক : আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন ফেনীর আলোচিত সাবেক সংসদ সদস্য জয়নাল হাজারী।

সোমবার রাতে তার হাতে উপদেষ্টা হওয়ার এই চিঠি তুলে দিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

চিঠিতে বলা হয়েছে, আওয়ামী লীগের ২০তম কাউন্সিলের প্রদত্ত্ব  ক্ষমতাবলে দলের সভাপতি শেখ হাসিনা আপনাকে দলের উপদেষ্টা হিসেবে মনোনয়ন দিয়েছেন। আশা করি আপনার শ্রম, মেধা ও পজ্ঞা দিয়ে সংগঠনের নতুন গতিবেগ সঞ্চার করতে সহায়তা করবেন। চিঠিতে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের স্বাক্ষর রয়েছে।

জয়নাল হাজারী আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা হিসেবে মনোনয়ন পাওয়ার বিষয়টি রাইজিংবিডিকে নিশ্চিত করেছেন আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ।

শারীরিকভাবে অসুস্থ হওয়ায় সম্প্রতি জয়নাল হাজারীকে চিকিৎসার জন্য ৪০ লাখ টাকা অনুদান দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

গত ৩ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে ওই অনুদানের চেক গ্রহণ করতে গেলে তার সঙ্গে রাজনীতি নিয়েও অনেক কথা হয় দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনার। এ সময় প্রধানমন্ত্রী তার স্বাস্থ্যের খোঁজখবন নেন এবং তার সুস্থতা কামনা করেন।

ওই দিনই শেখ হাসিনা দলের গুরুত্বপূর্ণ এই পদে তাকে নিয়োগ দেন বলে গণমাধ্যমকে জানিয়েছিলেন একাধিক নেতা।

যদিও এই বিষয়ে ওই সময়ে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের জানিয়েছিলেন জয়নাল হাজারীর মনোনয়ন পাওয়ার বিষয়টি জানেন না তিনি।

ওবায়দুল কাদেরের ওই বক্তব্যের পরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে লাইভে এসে নিজে উপদেষ্টা হিসেবে মনোনয়ন পাওয়ার খবর জানান জয়নাল হাজারী।

জয়নাল হাজারী ১৯৮৪ সাল থেকে ২০০৪ সাল পর্যন্ত ফেনী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। ফেনী-২ (সদর) আসন থেকে ১৯৮৬, ১৯৯১ এবং ১৯৯৬ সালে টানা তিনবার সংসদ সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হন।

তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় ২০০১ সালের ১৭ আগস্ট দেশ ছেড়ে পালিয়ে যান জয়নাল হাজারী। সংসদ সদস্য হিসেবে তার শেষ মেয়াদে নানা বিতর্কে জড়ান আলোচিত এই নেতা। এ কারণে ২০০৪ সালে দল থেকে বহিষ্কৃত হন।

এরপর দীর্ঘদিন রাজনীতিতে নিষ্ক্রিয় ছিলেন তিনি। ফেনী থেকে হাজারিকা নামে প্রকাশিত একটি দৈনিকের সম্পাদকও তিনি।

নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর ২০০৯ সালের ফেব্রুয়ারিতে দেশে ফিরেন তিনি। পাঁচটি মামলায় ৬০ বছরের সাজা হয় তার।

এরপর ওই বছরের ২২ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্টে আত্মসমর্পণ করলে আট সপ্তাহের জামিন পান হাজারী। পরে ১৫ এপ্রিল নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণ করলে তাকে পাঠানো হয় কারাগারে। চার মাস কারাভোগের পরে ২০০৯ সালের ২ সেপ্টেম্বর জামিনে মুক্ত হন তিনি।

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন..

© All rights reserved © 2018 BanglarKagoj.Net
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!