বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ১০:১৮ পূর্বাহ্ন

রাজকোটে ভারত-বাংলাদেশ ম্যাচকে ঘিরে ব্যাপক আগ্রহ

রাজকোটে ভারত-বাংলাদেশ ম্যাচকে ঘিরে ব্যাপক আগ্রহ

স্পোর্টস ডেস্ক : সৌরাষ্ট্র ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়াম ভারতের একমাত্র স্টেডিয়াম যা তৈরি করা হয়েছে পরিবেশবান্ধব উপায় মেনে। রাজকোট শহরের ১৫ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত এ স্টেডিয়ামের বিদ্যুতের জোগান আসে সৌরশক্তি থেকে। তাইতো স্টেডিয়ামের বাইরে বড় করে লিখা আছে,‘ইকো ফ্রেন্ডলি স্টেডিয়াম।’

এ স্টেডিয়ামেই বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি খেলবে বাংলাদেশ ও ভারত। দিল্লি জয় করে বাংলাদেশের মিশন এখন রাজকোট। ভারতের মাটিতে ভারতকে হারানোর মধুর স্বাদ পেয়েছে বাংলাদেশ। এবার সিরিজ জয়ের পালা। ভারতের স্টেডিয়ামগুলোতে ম্যাচ পড়ে ভেন্যু রোটেশন পলিসি (ভিআরপি) অনুযায়ী। বিভিন্ন ভেন্যু ঘুরে ঘুরে খেলা হয়। ২০১৩ সালে পথচলা শুরু করা সৌরাষ্ট্র ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়ামে এখন পর্যন্ত আন্তর্জাতিক ম্যাচ হয়েছে ৬টি। সবশেষ এখানে ম্যাচ হয়েছিল ২০১৮ সালে। টেস্ট খেলেছিল স্বাগতিক ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল। ২০১৫ সালে ওয়ানডে এবং ২০১৭ সালে হয়েছিল টি-টোয়েন্টি।

দীর্ঘদিন পর এখানে ম্যাচ হওয়ায় স্থানীয়দের আগ্রহ থাকে বেশি। তবে এবার স্থানীয়দের আগ্রহ ভিন্ন এবং অন্য সববারের থেকে বেশি। দুটি কারণে ভারত-বাংলাদেশের ম্যাচ নিয়ে উত্তেজনা বেড়েছে।

প্রথমত, ভারত পিছিয়ে থাকায়।

বাংলাদেশ দিল্লিতে প্রথম টি-টোয়েন্টি জিতে সিরিজ জমিয়ে তুলেছে। ভারতের মতো শক্তিশালী দলের বিপক্ষে ম্যাচ জয় চাট্টেখানি কথা নয়। নিজেদের দল শক্তভাবে সিরিজে ফিরে আসবে এমনটাই বিশ্বাস করেন স্থানীয়রা। তাইতো ছেলে-বুড়ো সবার আগ্রহ দিবারাত্রির এ ম্যাচকে নিয়ে।

দ্বিতীয়ত, এশিয়ার দুই দলের লড়াই।

নয়নাভিরাম স্টেডিয়ামে প্রথমবারের মতো এশিয়ার দুই দল মাঠে নামতে যাচ্ছে। এর আগে এখানে যে ছয়টি ম্যাচ হয়েছে তাতে স্বাগতিক দলের প্রতিপক্ষ ছিল ইংল্যান্ড, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, দক্ষিণ আফ্রিকা, অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড। প্রতিবেশী দেশ হওয়ায় দুই দলের সংস্কৃতির খুব বেশি পার্থক্য নেই। বাংলাদেশ এবং বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের খুব জানাশোনা এখানকার তরুণ-তরুণীদের। তাইতো ম্যাচটি ছড়াচ্ছে বাড়তি উত্তেজনা।

টিকিট বিক্রিতে ব্যাপক সাড়া পাচ্ছেন আয়োজকরা। স্টেডিয়ামের সেক্রেটারি হিমাংশু শাহ বলেছেন, ‘টিকিট বিক্রি খুব ভালো হচ্ছে। আমরা খুব সাড়া পাচ্ছি। বাংলাদেশ প্রথমবারের মতো খেলতে আসায় তাদের নিয়ে দর্শকদের মধ্যে দারুণ আগ্রহ লক্ষ করছি।’

প্রায় ২৮ হাজার ধারণক্ষমতা সম্পন্ন স্টেডিয়ামে কাল গগণবিদারী চিৎকার হবে।  ইন্ডিয়া ইন্ডিয়া বলে কলরব উঠবে।  এরই মধ্যে মাঠে থাকবে ১১ ক্রিকেটার।  ভারতের গর্জন থামিয়ে বাংলাদেশ আরেকবার জিততে পারবে তো?

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন..

© All rights reserved © 2018 BanglarKagoj.Net
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!