1. banglarkagoj@gmail.com : admi2018 :

বুধবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৪:২৩ অপরাহ্ন

নালিতাবাড়ীতে কিশোর-যুব গ্যাং কালচার নিয়ে উদ্বেগ

নালিতাবাড়ীতে কিশোর-যুব গ্যাং কালচার নিয়ে উদ্বেগ

নালিতাবাড়ী (শেরপুর) : কিশোর ও উঠতি যুব গ্যাং নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন উপজেলা প্রশাসন। বিষয়টি গুরুত্বের সাথে বিবেচনায় আনতে মতামত দিয়েছেন জনপ্রতিনিধিসহ অন্যরা। আজ (১৮ নভেম্বর) সোমবার শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলা প্রশাসনের মাসিক আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভায় বিষয়টি উঠে আসে।
জানা গেছে, নালিতাবাড়ী পৌর শহরের কালিনগর বাইপাস এলাকা ও শহরের দক্ষিণ বাজার বাজার ছিটপাড়া মহল্লা ঘিরে গত কয়েক বছরে উঠতি বয়সী কিশোর ও যুবকেরা মাদক সেবন, মাদক ব্যবসা, চাঁদাবাজী ও মারামারিসহ নানা অপরাধমূলক কর্মকান্ডে জড়িয়ে পড়ে। সংখ্যায় অন্তত অর্ধশত যুব-কিশোর শুরু করে গ্যাং কালচার। এদের নেতৃত্বে এলাকায় মাদক ব্যবসা, মাদক সেবন, নানাখাতে নিরব চাঁদাবাজী, গভীর রাত পর্যন্ত আড্ডাবাজি ও মারামারিসহ অপরাধমূলক কর্মকান্ড পরিচালিত হয়। এদের অত্যাচারে সাধারণ মানুষ উদ্বিগ্ন হলেও ভয়ে প্রকাশ্যে কেউ মুখ খোলেন না। ফলে ক্রমেই বেপরোয়া হয়ে উঠে এ গ্যাংয়ের সদস্যরা। সম্প্রতি একটি ঘটনায় দক্ষিণ বাজারের গ্যাংটি নিরব হয়ে গেলেও শঙ্কা কাটেনি সাধারণ মানুষের। এরইমধ্যে কালিনগর বাইপাস মহল্লায় গত ২ নভেম্বর স্কুলছাত্র অমি অপহরণের পর হত্যার ঘটনায় সেখানকার গ্যাংয়ের এক সদস্য উমর কাজী রাব্বি অপরাধের কথা স্বীকার করে আদালতে জবাবনবন্দি দেয়। এরপরই মূলত আলোচনায় আসে গ্যাং কালচার।
ওই মহল্লার নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ব্যক্তিরা জানান, কালিনগর বাইপাস এলাকা এখন ভদ্র লোকের বসবাসের অনুপযোগী হয়ে গেছে। গ্যাং কালচার এ এলাকার উঠতি বয়সীদের আতঙ্কে পরিণত হয়েছে। সন্তানদের নিয়ে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন মহল্লাবাসী। এমতাবস্থায় গ্যাং কালচার নিয়ন্ত্রণে প্রশাসনের কঠোর পদক্ষেপের দাবী জানিয়েছেন তারা।
এদিকে ১৮ নভেম্বর সোমবার উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক আয়োজিত মাসিক আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভায় অমি হত্যাকান্ডের ঘটনা তোলে ধরে গ্যাং কালচারের প্রতি প্রশাসনের দৃষ্টিপাত করেন বাংলার কাগজ প্রকাশক ও সম্পাদক মনিরুল ইসলাম মনির। এরপর বিষয়টি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে আগামী প্রজন্মকে রক্ষা করতে বিষয়টি গুরুত্বের সাথে দেখতে প্রশাসনের প্রতি অনুরোধ করেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান হাজী আমিনুল ইসলাম। অমি হত্যাকান্ডে একই বিষয়ে জোর দেন উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি মাসুদ কবিরসহ সভায় উপস্থিত অনেকেই। সভার সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফুর রহমানও বিষয়টি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে পুলিশ প্রশাসনের প্রতি আহবান জানান।
এছাড়াও সভায় ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রাপ্তিতে বিড়ম্বনা, শহরের যানজট ও ধানহাটি স্থানান্তরসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হয়।
অন্যান্যের মধ্যে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোকছেদুর রহমান লেবু, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আশুরা বেগম, পৌর মেয়র আবু বক্কর সিদ্দিক, ইউপি চেয়ারম্যান ইউনুছ আলী দেওয়ান, আসাদুজ্জামান, উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা ফজিলাতুন্নেছা, থানা পুলিশের সেকেন্ড অফিসার রিপন চন্দ্র সরকার, প্রধান শিক্ষক যোগেন রায়, সনাকের প্রতিনিধি আ.ন.ম সাদরুল আহসান মাসুম প্রমুখ নানা সমস্যা ও পরামর্শ তোলে ধরে বক্তব্য রাখেন।

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন..

© All rights reserved © 2018 BanglarKagoj.Net
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!