1. banglarkagoj@gmail.com : admi2018 :

বৃহস্পতিবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৯:০৫ অপরাহ্ন

গোলাপি বলেই ৭৩ বছরের রেকর্ড ভাঙবেন স্মিথ!

গোলাপি বলেই ৭৩ বছরের রেকর্ড ভাঙবেন স্মিথ!

স্পোর্টস ডেস্ক : পাকিস্তানের বিপক্ষে ব্রিসবেন টেস্ট ইনিংস ব্যবধানে জিতেছে অস্ট্রেলিয়া। কিন্তু রান পাননি স্টিভেন স্মিথ। টেস্ট র‌্যাঙ্কিংয়ের এক নম্বর ব্যাটসম্যান আউট হন মাত্র ৪ রানেই। অস্ট্রেলিয়ার করা ৫৮০ রানের ইনিংসে যেটি কোনো ব্যাটসম্যানের সর্বনিম্ন স্কোর।

এই ব্যর্থতার জন্য অবশ্য নিজেকে ‘শাস্তি’ও দিয়েছেন অস্ট্রেলীয় ব্যাটসম্যান। গ্যাবা থেকে দলের বাকি সবাই যেখানে টিম বাসে চড়ে হোটেলে ফিরেছে, সেখানে স্মিথ টানা তিন কিলোমিটার দৌড়ে হোটেলে ফেরেন!

বল টেম্পারিংয়ের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে গত অ্যাশেজে ফিরে স্মিথ একরকম রানের বন্যা বইয়ে দিয়েছিলেন। ৭ ইনিংসে ১১০.৫৭ গড়ে করেছিলেন ৭৭৪ রান। ব্রিসবেনে দুই অঙ্ক ছোঁয়ার আগেই স্মিথের আউট হওয়ার ব্যাপারটা তাই সবাইকে অবাক করেছে।

অথচ এই টেস্টে ২৭ রান করলেই ৭ হাজার রানের মাইলফলক ছুঁয়ে ফেলতেন স্মিথ। গড়তেন টেস্টে দ্রুততম ৭ হাজার রানের নতুন রেকর্ড। যে রেকর্ডটা ৭৩ বছর ধরে নিজের দখলে রেখেছেন ইংলিশ কিংবদন্তি ওয়ালি হ্যামন্ড।

অবশ্য স্মিথের জন্য হ্যামন্ডের রেকর্ড ভাঙার সুযোগ শেষ হয়ে যায়নি। ১৯৪৬ সালের আগস্টে ওভালে হ্যামন্ড ৭ হাজার রান পূর্ণ করেছিলেন তার ১৩১তম ইনিংসে। স্মিথ এখন পর্যন্ত ৬ হাজার ৯৭৭ রান করেছেন ১২৫ ইনিংসে। অর্থাৎ হ্যামন্ডের রেকর্ড ভাঙার জন্য স্মিথের হাতে আছে এখনো পাঁচ ইনিংস।

বৃহস্পতিবার অ্যাডিলেড ওভালে শুরু হচ্ছে অস্ট্রেলিয়া-পাকিস্তান দ্বিতীয় টেস্ট। ম্যাচটা হবে দিবারাত্রির। কে জানে, হয়তো গোলাপি বলের এই টেস্টেই হ্যামন্ডের ৭৩ বছরের অক্ষত রেকর্ডটা ভেঙে দেবেন স্মিথ! দরকার মাত্র ২৩ রান!

গোলাপি বলের টেস্টে স্মিথের রেকর্ডও দারুণ। এখন পর্যন্ত চার ম্যাচে একটি সেঞ্চুরি ও তিনটি ফিফটিতে করেছেন ৪০৫ রান। তার চেয়ে বেশি রান আছে শুধু আজহার আলীর। তিন ম্যাচে আজহারের রান ৪৫৬। সমান ম্যাচে ৩৩৫ রান করেছেন আরেক পাকিস্তানি আসাদ শফিক। দিবারাত্রির টেস্টের সর্বোচ্চ তিন রান সংগ্রাহকই অ্যাডিলেডে খেলতে যাচ্ছেন।

খেলবেন দিবারাত্রির টেস্টের সর্বোচ্চ চার উইকেটশিকারিও। এখন পর্যন্ত পাঁচ ম্যাচে ২৬ উইকেট নিয়ে সবার ওপরে আছেন অস্ট্রেলিয়ার পেসার মিচেল স্টার্ক। দেশটির আরেক পেসার জশ হ্যাজেলউড চার ম্যাচে নিয়েছেন ২১ উইকেট। পাকিস্তানের লেগ স্পিনার ইয়াসির শাহ তিন ম্যাচে ১৮, অস্ট্রেলিয়ার অফ স্পিনার নাথান লায়ন পাঁচ ম্যাচে নিয়েছেন ১৭ উইকেট।

অস্ট্রেলিয়া প্রথম টেস্টের একাদশ নিয়েই গোলাপি বলের লড়াইয়ে নামবে। পাকিস্তান কমপক্ষে দুটি পরিবর্তন আনতে পারে। হ্যারিস সোহেলের জায়গায় ফিরতে পারেন ইমাম-উল-হক। সেক্ষেত্রে ইমামকে ওপেনিংয়ের জায়গা ছেড়ে দিয়ে তিনে নেমে যেতে হবে অধিনায়ক আজহারকে।

এছাড়া পেসার ইমরান খানের জায়গায় ফিরছেন মোহাম্মদ আব্বাস। আগের টেস্টে অভিষেক হওয়া ১৬ বছর বয়সি পেসার নাসিম শাহ অ্যাডিলেডেও খেলতে পারেন, আবার তার জায়গায় অভিষেক হতে পারে ১৯ বছর বয়সি পেসার মোহাম্মদ মুসার।

কদিন আগেই কলকাতার ইডেন গার্ডেনে গোলাপি বলে দিবারাত্রির টেস্ট খেলেছে ভারত ও বাংলাদেশ। সপ্তাহ শেষ না হতেই আরেকটি দিবারাত্রির টেস্ট দেখার সুযোগ পাচ্ছেন ক্রিকেটপ্রেমীরা। ২০১৫ সালের নভেম্বরে অ্যাডিলেড ওভালেই যাত্রা শুরু হয়েছিল দিবারাত্রির টেস্টের।

অস্ট্রেলিয়া পরপর দুই টেস্ট খেলবে গোলাপি বলে। ডিসেম্বরে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে পার্থে তাদের প্রথম টেস্ট ম্যাচটাও যে দিবারাত্রির।

টেস্টে দ্রুততম ৭ হাজার রান

ওয়ালি হ্যামন্ড- ১৩১ ইনিংস

বীরেন্দর শেবাগ- ১৩৪ ইনিংস

শচীন টেন্ডুলকার- ১৩৬ ইনিংস

গ্যারি সোবার্স- ১৩৮ ইনিংস

কুমার সাঙ্গাকারা- ১৩৮ ইনিংস

বিরাট কোহলি-১৩৮ ইনিংস

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন..

© All rights reserved © 2018 BanglarKagoj.Net
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!