1. nirjoncomputer@gmail.com : Alamgir Jony : Alamgir Jony
  2. admin@banglarkagoj.net : admin :
সোমবার, ০৬ জুলাই ২০২০, ১১:২৯ পূর্বাহ্ন

কাশ্মিরের জনসংখ্যা চিত্র বদলে ফেলছে মোদি সরকার

  • আপডেট টাইম :: রবিবার, ২৮ জুন, ২০২০
  • ৪০ বার পড়া হয়েছে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : অন্য রাজ্যের বাসিন্দাদের জম্মু ও কাশ্মীরে বসবাসের অনুমতি দিতে শুরু করেছে ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপি সরকার। মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ এই রাজ্যের জনসংখ্যায় ধর্মভিত্তিক ভারসাম্যহীনতা সৃষ্টির অপকৌশল হিসেবে এটি করা হচ্ছে বলে দাবি করেছে আরব নিউজ।

সংবাদমাধ্যমটি জানিয়েছে, ইতোমধ্যে কেন্দ্রীয় সরকার রাজ্যের বাইরের ২৫ হাজার মানুষকে স্থায়ী বাসিন্দা হিসেবে থাকার অনুমতি দিয়েছে।

গত এপ্রিলে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি কাশ্মিরের বাসিন্দা নয় এমন ভারতীয়দের রাজ্যে স্থায়ীভাবে বসবাসের অনুমতি দিতে একটি আইন উপস্থাপন করেন। ওই সময় বিশ্লেষকরা আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেছিলেন, মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ কাশ্মিরে জনতাত্বিক পরিবর্তন আনতেই মোদির হিন্দুত্ববাদী দল বিজেপি এই আইন পাশ করিয়েছে। এর মাধ্যমে অন্য রাজ্যের হিন্দুদের কাশ্মিরে বাসিন্দা বানিয়ে রাজ্যে বিজেপি তাদের ভোটার বাড়াতে যাচ্ছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় এক সরকারি কর্মকর্তা জানিয়েছেন, কাশ্মিরের বাসিন্দা হতে চেয়ে ৩৩ হাজারের বেশি আবেদন জমা পড়েছে। এর মধ্যে ২৫ হাজার আবেদন মঞ্জুর হয়েছে মে মাসের মাঝামাঝি সময়ে।

নতুন আইন অনুযায়ী, যারা কাশ্মীরে ১৫ বছর ধরে বাস করছেন কিংবা সাত বছর পড়াশোনা করেছেন তারা স্থায়ী বাসিন্দা হওয়ার আবেদন করতে পারবেন। এছাড়া রেজিস্টার্ড অভিবাসী এবং কেন্দ্রীয় সরকারের যেসব কর্মকর্তা ১০ বছর কাশ্মিরে চাকরি করেছেন তাদের সন্তানরা স্থায়ী বাসিন্দার আবেদন করতে পারবেন।

কাশ্মিরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ও ন্যাশনাল কনফারেন্স (এনসি) নেতা ওমর আব্দুল্লাহ শুক্রবার এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘এনসি এই পরিবর্তনের বিরোধিতা করেছে। কারণ আমরা এই পরিবর্তনের পেছনে অশুভ নকশা দেখতে পেয়েছিলাম।’

শনিবার দলের মুখপাত্র ইমরান নবি বলেছেন, এটা কাশ্মিরের ‘জনগণের কফিনে শেষ পেরেক ও অবিচার। এটি আমাদের ভূমি ও কর্মসংস্থানের ওপর সরাসরি হামলা।’

রাজ্যের সাবেক ক্ষমতাসীন দল পিপলস ডেমোক্রেটিক পার্টির অভিযোগ, কাশ্মিরের পরিচয় বদলে ফেলতে চলছে নয়া দিল্লি।

গত বছর ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিল করার মধ্য দিয়ে কাশ্মিরের বিশেষ রাজ্যের মর্যাদা কেড়ে নেয় নয়া দিল্লি। বিজেপি সরকারের এই পদক্ষেপের বিরুদ্ধে রাজ্যে ব্যাপক বিক্ষোভ হলে তা সামারিক বাহিনীর মাধ্যমে নৃশংসভাবে দমন করে কেন্দ্রীয় সরকার।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2011-2020 BanglarKagoj.Net
Theme Customized By BreakingNews