1. nirjoncomputer@gmail.com : Alamgir Jony : Alamgir Jony
  2. admin@banglarkagoj.net : admin :
রবিবার, ৩১ মে ২০২০, ০৯:০৫ পূর্বাহ্ন

কী ঘটছে বিদ্রোহীদের ভাগ্যে?

  • আপডেট টাইম :: বুধবার, ১২ ফেব্রুয়ারী, ২০২০
  • ৮৯ বার পড়া হয়েছে

রাজনীতি ডেস্ক: ঢাকা সিটি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের অভ্যন্তরীণ রাজনীতিতে সবচেয়ে আলোচিত ইস্যু ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থীদের ভাগ্যে কি ঘটতে যাচ্ছে, এর উত্তর পাওয়া যাবে খুব শিগগিরই।

তবে দলের নীতি নির্ধারণী পর্যায়ের বৈঠকের আগে কোনো নেতাই বলতে চাইছেন না, বহিষ্কারের মতো কঠোর পদক্ষেপ, না কী উপজেলার মতো এবারো ক্ষমার পথে হাটবে দল। যদিও বিদ্রোহী প্রশ্নে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বরাবরই নমনীয়তা দেখিয়েছেন। বিভিন্ন সময়ে সংবাদ সম্মেলন এ নিয়ে প্রশ্ন করা হলে বরাবরই তিনি অস্বস্তি প্রকাশ করে বলেছেন, ‘এটা আওয়ামী লীগের অভ্যন্তরীণ বিষয়।’

দলীয় সূত্র বলছে, দলের বিদ্রোহী প্রার্থী নিয়ে নির্বাচন পরবর্তী দলের নীতি নির্ধারণী পর্যায়ে এখনও কোনো বৈঠক হয়নি। তবে নির্বাচনের আগে প্রার্থিতা প্রত্যাহারের কঠোর বার্তা দেয়া হলেও তা কর্নপাত করেনি ‘বিদ্রোহী’ পরিচিতি পাওয়া স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করা আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতারা। বহিষ্কারের ভয় দেখিয়ে কোনো লাভ হয়নি। শেষ পর্যন্ত শতাধিক আসনে প্রতিদ্বন্দ্বী রাজনৈতিক দলের প্রার্থীদের সঙ্গে তো বটেই দলের বিদ্রোহী প্রার্থীদের সঙ্গেও প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে হয়েছে দলীয় কাউন্সিলর প্রার্থীদের।

এবারের সিটি নির্বাচনে কাউন্সিলর পদে ঢাকা দক্ষিণে ৭২ জন এবং উত্তরে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছিলেন ৩৯ জন। বার বার কঠোর নির্দেশনা দেয়ার পরও থামেনি বিদ্রোহীরা। ১১১ জন বিদ্রোহী প্রার্থীর মধ্যে দুই সিটিতে জিতেছেন ১৬ জন। এর মধ্যে ঢাকা উত্তরে ৮ জন এবং দক্ষিণে ৮ জন। আর বিদ্রোহী সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলরদের মধ্যে জিতেছেন ২ জন।

দলের বিভিন্ন পর্যায়ে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বিদ্রোহী প্রার্থীদের বিষয়ে দলের বর্তমান অবস্থান এখন পর্যন্ত বেশ নমনীয়। এ মাসেই দলের ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠকে বিষয়টি উঠবে। তবে দলীয় সমর্থন পাওয়া কাউন্সিলররা চান বিদ্রোহী প্রার্থীদের বিষয়ে কঠোর হোক দল। নির্বাচনে বিভিন্ন জায়গায় দলীয় সমর্থন পাওয়া প্রার্থী ও বিদ্রোহী প্রার্থীর মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। কোথাও কোথাও সংঘর্ষ ব্যাপক আকার ধারণ করেছে। দলের দুইপক্ষের কাঁদা ছোড়াছুড়িতে সুবিধা পেয়েছে প্রতিদ্বন্দ্বি রাজনৈতিক দলের প্রার্থিরা।

দলের বেশ কয়েকজন কাউন্সিল প্রার্থী জানিয়েছেন, ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে তারা যে ধরনের প্রতিবন্ধকতার মুখোমুখি হয়েছেন, তা লিখিত আকারে দলের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির দায়িত্বে যারা ছিলেন তাদের কাছে জানিয়েছেন। ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদককে তারা বিষয়টি অবহিত করেছেন। এখন তারা তাকিয়ে আছেন দল কী পদক্ষেপ নেয় সেদিকে। গত উপজেলা এবং ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনেও যারা বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছিলেন, তাদের বিরুদ্ধেও কোনো ব্যবস্থা নেয়নি দল। এখন দেখার বিষয় এক্ষেত্রে দলের পদক্ষেপ কী হয়?

অভিযোগ উঠেছে, নিজেদের স্বার্থের জন্য বেশ কয়েকটি ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বি রাজনৈতিক দল বিএনপির-জামায়াতের প্রার্থীর সঙ্গে গোপন আতাতও করেছে কেউ কেউ। যে ১৬টি আসনে ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থীর কাছে দলীয় সমর্থন পাওয়া প্রার্থিরা হেরেছেন তাদের এই অভিযোগ বেশি। মহানগরের অনেক নেতা, এমনকি সংসদ সদস্য কাউন্সিলর পদে বিদ্রোহীদের সরাসরি মদদ দিয়েছেন বলেও অভিযোগ এসেছে। ‘বিদ্রোহী’ অনেক নেতা নির্বাচনী মাঠে প্রকাশ্যেই বলেছেন যে, ‘অমুক নেতা’ তাকে নির্বাচন করতে বলেছেন। মদদদাতা হিসেবে নাম আসায় এ নিয়ে কেন্দ্রীয় এসব নেতারাও বিব্রত।

দলের শীর্ষ পর্যায়ের কয়েকজন নেতার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, দলীয় সমর্থিত প্রার্থী বাইরে গিয়ে যারা নির্বাচন করেছেন, এমন অনেক নেতাকে দলের কেন্দ্রীয় অনেক নেতা যে প্রত্যক্ষ সহযোগিতা করেছেন সেটি নিয়ে দলে সমালোচনা আছে। উপজেলা নির্বাচনেও এই অভিযোগ এসেছিল। উপজেলা নির্বাচনে বিদ্রোহীদের বিষয়ে দল কঠোর অবস্থানে থাকলেও শেষ পর্যন্ত শোকজ দেয়ার কারণ আছে। তবে সিটি নির্বাচনে দল কঠোর অবস্থানে যেতে পারে। বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে দেখা হচ্ছে। নির্বাচনে এই ‘বিদ্রোহী’ চর্চা লাগামহীন হচ্ছে। এখনই এর লাগাম টেনে না ধরলে ভবিষ্যতে তা নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাবে। অবধারিতভাবে সেটি দলের জন্য ভালো হবে না।

বিদ্রোহী প্রার্থীদের বিষয়ে দলের ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠকে বিষয়টি আলোচনা হবে জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আমাদের অভ্যন্তরীণ কিছু দুর্বলতা অবশ্যই আছে। এ থেকে উত্তরণের জন্য মহানগরে ওয়ার্ড, থানায় সম্মেলন করে কমিটি করা হবে। আওয়ামী লীগের সাধারণ ওয়ার্ডে বিজয়ী কাউন্সিলর ৯৮ জন, সংরক্ষিত ৩৪ জন, মোট ১৩২ জন। ১৬ জন বিদ্রোহী কাউন্সিলর বড় কোনো সংখ্যা নয়।’

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2011-2020 BanglarKagoj.Net
Theme Customized By BreakingNews