1. nirjoncomputer@gmail.com : Alamgir Jony : Alamgir Jony
  2. admin@banglarkagoj.net : admin :
সোমবার, ২৫ মে ২০২০, ১২:২২ পূর্বাহ্ন

বাংলার কাগজ প্রতিনিধির সহায়তায় অসহায় পঙ্গু হাসুর পাশে ঝিনাইগাতী প্রশাসন

  • আপডেট টাইম :: রবিবার, ২৯ মার্চ, ২০২০
  • ১৭৩ বার পড়া হয়েছে

ঝিনাইগাতী (শেরপুর) : ঝিনাইগাতীর কাংশা ইউনিয়নের বিষ্ণপুর গ্রামের অসহায় দরিদ্র ও প্রতিবন্ধী যুবক হাবিবুল্লাহ বাহার হাসু (৩১)। জন্মের ২ মাস বয়সে গর্ভধারীনি মা মারা যান তার। ৬ মাস বয়সে মারা যান জন্মদাতা পিতা। এসময় একই গ্রামের আব্দুল আওয়াল নামে নিঃসন্তান এক ব্যক্তি হাসুকে পোষ্য নেন। পোষ্য পিতার ঘরে থেকে পড়াশোনা করলেও এসএসসি পাশ করতে পারেনি হাসু। তবে তার পোষ্য পিতা বাড়ির পাশে একটুকু জায়গা দিয়ে প্রাথমিক বিদ্যালয় গড়ে তোলে। এরপর ওই স্কুলে এক তরুণীকে চাকরী দিয়ে তার সাথে হাসুর বিয়ে দেন। কিন্তু বিদ্যালয় সরকারী হয়ে গেলে বিয়ের পাঁচ বছরের মাথায় স্বামী হাসুকে ফেলে স্ত্রী চলে যায় অন্য যুবকের হাত ধরে। এর কিছুদিন পর হাসুর পোষ্য পিতাও মারা যান। একপর্যায়ে পুনরায় বিয়ে করে স্ত্রী, সন্তান ও পোষ্য মাকে বাড়ি রেখে ঢাকায় একটি কোম্পানীতে চাকুরী নেন হাসু। এখানেও ভাগ্য তার সাথে খেলা করে। ৬ মাস না পেরুতেই একদিন যাত্রীবাহী বাসের সাথে ধাক্কা লেগে ভেঙে যায় হাসুর পা। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে কোম্পানী থেকে বিদায় করা হয় হাসুকে। গ্রামে এসে চিকিৎসা করাতে গিয়ে ভিটেবাড়ি পর্যন্ত বিক্রি করেন হাসু। শেষ পর্যন্ত উরু থেকে কেটে ফেলতে হয় ডান পা। এরপর থেকে হাসু হয়ে যান পঙ্গু হাসু। তার এ পঙ্গুত্ব বরণের কয়েক বছর কেটে গেলেও ভাগ্যে জুটেনি পঙ্গু ভাতা। জুটেনি সরকারী অন্য কোন সুযোগ-সুবিধা। শারিরিক ভাবে অক্ষম হওয়ায় করতে পারে না কোন কাজকর্ম। ফলে অর্থাভাবে পোষ্য মা, স্ত্রী ও তিন সন্তান নিয়ে মানবেতর জীবন-যাপন করছেন হাসু।
এমতাবস্থায় সম্প্রতি বাংলার কাগজ ঝিনাইগাতি প্রতিনিধি দুদু মল্লিকের কাছে ছুটে আসেন হাসু। দুদু মল্লিক নিজে সামান্য সহযোগিতা শেষে এবং খোঁজ-খবর নিয়ে বিষয়টি জেলা প্রশাসনকে অবহিত করা হয়। পরে জেলা প্রশাসনের নির্দেশনায় গতকাল শনিবার (২৮ মার্চ) সকালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুবেল মাহমুদ হাসুর বাড়ি গিয়ে সহযোগিতার হাত বাড়ান। একই দিন বিকেলে ঝিনাইগাতী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এসএমএ ওয়ারেজ নাইম হাসুর বাড়ি গিয়ে খোঁজ-খবর নেন এবং চাল ও নগদ অর্থ সহায়তা করেন। এসময় হাসুর জন্য প্রতিবন্ধী ভাতার ব্যবস্থা করে দেওয়ার আশ্বাস দেন তিনি।
প্রতিবন্ধী হাসু জানান, আমি অন্যের জমিতে বসবাস করছি। তাই সরকারের কাছে আমার দাবী, মাথা গোজার ঠাঁই হিসেবে সরকার যেন আমাকে খাস জমি বন্দবস্তো করে দেন এবং সরকারী ঘর বরাদ্দ দেন।
– মোহাম্মদ দুদু মল্লিক

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2011-2020 BanglarKagoj.Net
Theme Customized By BreakingNews