1. monirsherpur1981@gmail.com : banglar kagoj : banglar kagoj
  2. admin@banglarkagoj.net : admin :
মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২২, ১২:৫৪ অপরাহ্ন

বৃদ্ধাকে ঘাড়ধাক্কা দিয়ে রাস্তায় ফেলে মাথা ফাটালো পুত্রবধূ-নাতি

  • আপডেট টাইম :: শুক্রবার, ১৪ জানুয়ারী, ২০২২

নালিতাবাড়ী (শেরপুর) : সত্তর বছর বয়সী এক বৃদ্ধাকে ঘাড়ধাক্কা দিয়ে বাসা থেকে বের করে পাকা রাস্তায় ফেলে মাথা ফাটিয়ে দিয়েছে তারই পুত্রবধূ ও নাতি। এমন একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়ায় তোলপাড় শুরু হয়েছে। শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) দুপুরে শেরপুরের নালিতাবাড়ী পৌর শহরের উত্তর বাজারস্থ ৩নং ওয়ার্ডে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও এলাকাবাসী জানায়, শহরের ওই মহল্লার মেইন রোড সংলগ্ন অমল কান্তি গাঙ্গুলি দুই ছেলে, এক কন্যা ও স্ত্রী রেখে গেল বছরের ১৫ মে মারা যান। তিনি মারা যাওয়ার পর বড় ছেলে অসীম গাঙ্গুলি (৫৫) বাসার সবটুকু জমি তার নামে লেখা রয়েছে বলে দাবী করে। বিষয়টি স্থানীয় জনপ্রতিনিধি পর্যন্ত গড়ালে সামাজিক বিচারে ছোট ভাই অনুজ গাঙ্গুলি (৫২) ও বড় ভাই অসীম গাঙ্গুলির মাঝে হিন্দু রীতি অনুযায়ী সমানভাবে ভাগ করে বাসার সীমানা ইটের দেয়াল তুলে বাউন্ডারি করে দেওয়া হয়। এছাড়াও পিতার কাছ থেকে জীবদ্দশায় কৌশলে লিখে নেওয়া বাসার সবটুকু জমি থেকে অর্ধেক ছোট ভাইকে লিখে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। কিন্তু বড় ভাই অসীম গাঙ্গুলি লিখে দিতে গড়িমসি করায় তাদের বৃদ্ধা মা অঞ্জলী গাঙ্গুলি বিষয়টি সমাধান না হওয়া পর্যন্ত সামনে থাকা ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে তালা ঝুলিয়ে দেন।

আজ শুক্রবার বৃদ্ধা অঞ্জলী বড় ছেলের অংশে বাসায় প্রবেশ করলে পুত্রবধূ উমা গাঙ্গুলি ও নাতি ঐহী গাঙ্গুলি বৃদ্ধাকে ঘাড় ধরে বাসা থেকে বের করে দেয় এবং ঐহী ঘাড় ধরে সজোরে সামনে থাকা পাকা রাস্তায় তার দাদীকে ছুঁড়ে ফেলে। বৃদ্ধা রাস্তায় আছড়ে পড়ার সাথে সাথেই মাথা ফেটে রক্ত বেরুতে থাকে। এসময় প্রত্যক্ষদর্শীরা দ্রুত তাকে উদ্ধার করে নালিতাবাড়ী হাসপাতালে নিয়ে যান।

তবে এর আগে বড় ভাই অসীমের দোকানের সামনে অবস্থান করা বৃদ্ধা অঞ্জলীকে সড়িয়ে দিতে গেলে তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে পুত্রবধূ ও নাতির উপর লাঠিপেটা করেন বলে পাল্টা অভিযোগ রয়েছে।

এদিকে এ ঘটনার দৃশ্য পাশে থেকে কে বা কারা মোবাইলে ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দিলে মুহূর্তেই সমালোচনার ঝড় উঠে। আশপাশের মানুষ বাসার সামনে জড়ো হতে থাকে। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে এসে পরিস্থিতি শান্ত করে।

এ বিষয়ে থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বছির আহমেদ বাদল জানান, ঘটনা শোনে পুলিশ পাঠিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেব।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2011-2020 BanglarKagoj.Net
Theme Developed By ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!