1. monirsherpur1981@gmail.com : banglar kagoj : banglar kagoj
  2. admin@banglarkagoj.net : admin :
বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:৩৫ অপরাহ্ন

তত্ত্বাবধায়ক সরকার ছাড়া নির্বাচন হবে না : ফখরুল

  • আপডেট টাইম :: শনিবার, ১৯ নভেম্বর, ২০২২

সিলেট: তত্ত্বাবধায়ক সরকার ছাড়া দেশে আর কোনো নির্বাচন হবে না বলে জানিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, যারা তত্ত্বাবধায়ক সরকার ছাড়া নির্বাচন করবে, তাদের চিহ্নিত করা হবে। তারা গণশত্রু হিসেবে চিহ্নিত হবে।

শনিবার (১৯ নভেম্বর) বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে সিলেট আলিয়া মাদ্রাসার মাঠে বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশে বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘গত ১৪ বছরে এই সরকার বাংলাদেশকে তলাবিহীন ঝুড়িতে পরিণত করেছে। এই সরকারের বিচার হবে জনগণের আদালতে। মানুষের সব অধিকার কেড়ে নেওয়ার অপরাধে এই সরকারের বিচার হবে।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘সরকার এখন মামলা খেলা করছে। কোনো কিছুই ঘটেনি, তবু তারা নাশকতার কথা বলে বিএনপি নেতাদের বিরুদ্ধে মামলা করে। আবার হুমকি দেয়, হেফাজতের মতো অবস্থা হবে।’

তিনি বলেন, সরকার মনে করছে গুলি করলে, হত্যা করলে কিংবা ধর্মঘট দিলে বিএনপি থেমে যাবে। তাদের এই থিউরি কাজ করেনি। উল্টো সমাবেশগুলোতে আরও বেশি মানুষ উপস্থিত হচ্ছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, হুমকি ধামকিতে কাজ হবে না। জনগণ আজ জেগে উঠেছে। জনগণ বিজয় ছাড়া ঘরে ফিরে যাবে না।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘আমরা দেশে শান্তি চাই। অশান্তি চাই না। আমাদের দাবি এক— সরকারের পতন চাই। রাজপথেই এর ফয়সালা হবে। এই দানবীয় সরকারকে পরাজিত করে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে। তাই অভিলম্বে শেখ হাসিনাকে পদত্যাগ করতে হবে। মধ্যবর্তী সরকার ও নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন গঠন করতে হবে।’

জিনিসপত্রের মুল্যবৃদ্ধি প্রসঙ্গে ফখরুল বলেন, সাধারণ মানুষ, খেটে খাওয়া মানুষ, কৃষক শ্রমিক কিন্তু এখন শান্তিতে নেই। গতকালও চিনির দাম, তেলের দাম বেড়েছে। সবকিছুর দাম বেড়েছে। মানুষ এখন খেতে পারে না। তিন কোটি মানুষ বেকার। অথচ তারা ১০ টাকা দামে চাল খাওয়াবে বলেছিল।

তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী কেবল সংবিধানের দোহাই দেন। এই সংবিধান তো তিনি সংশোধন করিয়েছেন। এই সংবিধান আমরা মানি না। আর যদি একটি মিথ্যে মামলা দেয়া হয়, তবে জনগণ তা প্রতিহত করবে।’

তিনি বলেন, শেখ হাসিনা সরকারের পদত্যাগ, সংসদ বিলুপ্ত ও মধ্যবতীর্কালীন সরকারের অধীনে নির্বাচন চাই। ইভিএম দিয়ে আর কাজ হবে না।

মিজা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘সকল দলকে আমরা আহ্বান জানাই, আসুন আমরা একাত্তরের মতো এক হই। এই দানবীয় সরকারকে সবাই মিলে পরাজিত করি।’

সিলেটে বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশ নির্ধারিত সময়ের ৩ ঘণ্টা আগে শুরু হয়। শনিবার (১৯ নভেম্বর) দুপুর ২টায় সমাবেশ শুরু হওয়ার কথা থাকলেও বেলা ১১টায় কোরআন তিলাওয়াত ও মোনাজাতের মধ্য দিয়ে সমাবেশ শুরু হয়। চলে টানা বিকেল ৫টা পর্যন্ত। জেলা বিএনপির সভাপতি আব্দুল কাইয়ুম চৌধুরীর সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আব্দুল মঈন খান, এ জেড এম জাহিদ হোসেন, বিএনপির চেয়ারপাসনের উপদেষ্টা খন্দাকার আব্দুল মুক্তাদির, বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, সিলেট সিটি কর্পোরেশনে মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, বিএনপির চেয়ারপাসনের উপদেষ্টা ফজলুর রহমান, তাহসিনা রুশদী লুনাসহ কেন্দ্রীয় নেতারা।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2011-2020 BanglarKagoj.Net
Theme Developed By ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!