1. nirjoncomputer@gmail.com : Alamgir Jony : Alamgir Jony
  2. admin@banglarkagoj.net : admin :
শুক্রবার, ১৪ অগাস্ট ২০২০, ০৬:২০ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
শ্রীবরদীতে বেহাল রাস্তায় ধানের চারা লাগিয়ে এলাকাবাসীর প্রতিবাদ ঝিনাইগাতী উপজেলা প্রেসক্লাবের নয়া কমিটি: লেবু সভাপতি, দুদু সম্পাদক যশোরের শার্শায় সদ্য নবজাতক শিশু উদ্ধার তুরস্ক বিরোধ: পূর্ব ভূমধ্যসাগরে সামরিক উপস্থিতি বাড়ালো ফ্রান্স চাঁদাবাজির অভিযোগে এসআইসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা ২০২২ সালের মধ্যে ৮ বিভাগেই ক্যানসার হাসপাতাল: স্বাস্থ্যমন্ত্রী মহেশখালীতে ওসি প্রদীপসহ ২৯ জনের বিরুদ্ধে করা মামলা খারিজ প্রথম প্রচারণায় ট্রাম্পকে ধুয়ে দিলেন কমলা করোনায় নভেম্বর পর্যন্ত পেছালো লঙ্কান প্রিমিয়ার লিগ কুড়িগ্রামে বাস চাপায় একই পরিবারের তিনজনসহ সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৪

পৃথিবীর সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করছে অ্যালিয়েনরা!

  • আপডেট টাইম :: বৃহস্পতিবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২০
  • ১৬৪ বার পড়া হয়েছে

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক : পৃথিবীর বাইরের অন্যান্য গ্রহের অর্থাৎ ভিন গ্রহের প্রাণীদের বলা হয়ে থাকে, অ্যালিয়েন। বাস্তবে এখন পর্যন্ত ভিন গ্রহের প্রাণী বা অ্যালিয়েনের দেখা পাওয়া না গেলেও, ধারণা করা হয় অ্যালিয়েন রয়েছে।

সেই ধারণা এবার আরো জোড়ালো করল মহাকাশ থেকে আগত বেশ কিছু রেডিও সংকেত। তাহলে কি সত্যিই অ্যালিয়েনের অস্তিত্ব রয়েছে?

গবেষকরা সম্প্রতি ৫০০ মিলিয়ন আলোকবর্ষ দূর থেকে আগত বেশ কিছু রেডিও সংকেত পেয়েছেন। যেহেতু এই সংকেতগুলো এসেছে ভিন্ন সৌরজগৎ থেকে অর্থাৎ ৫০০ মিলিয়ন আলোকবর্ষ দূর থেকে, সেহেতু সেখানে থেকে কি ভিন গ্রহের প্রাণীরা এসব সংকেতের মাধ্যমে পৃথিবীর সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করছে? এমন প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে গবেষকদের মনে।

দ্য কানাডিয়ান হাইড্রোজেন ইনটেনসিটি ম্যাপিং এক্সপেরিমেন্ট টেলিস্কোপ ব্যবহার করে এই বেতার তরঙ্গগুলো শণাক্ত করা হয়েছে। বিস্ময়কর ঘটনা হলো, ৫০০ মিলিয়ন আলোকবর্ষ দূরের একটি গ্যালাক্সি থেকে এসব রেডিও সিগন্যাল বা বেতার তরঙ্গগুলো এসেছে প্রতি ঘণ্টায় ১টি করে, টানা ৪দিন ধরে। তারপর বন্ধ থেকেছে ১২ দিন। এরপর আবার এসেছে। এই প্রক্রিয়াটির পুনারাবৃত্তি হয়েছে ১৬.৩৫ পরপর এবং এভাবে পর্যায়ক্রমে চলেছে ৪০৯ দিন।

এসব তরঙ্গের উৎপত্তিস্থলটা যদিও অজানা কিন্তু অনেকেই মনে করছেন, এর মাধ্যমে অ্যালিয়েনরা পৃথিবীর সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করছে। তবে এ ধারণা উড়িয়ে দিয়েছেন ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির (এমআইটি) গবেষকরা।

এমআইটির গবেষকরা এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘এসব সংকেত অ্যালিয়েনদের হওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই। কারণ সংকেতগুলো মহাবিশ্বের চূড়ান্ত স্কেলগুলোতে ঘটা কোনো এনার্জির লক্ষণ। এমনকি অত্যন্ত বুদ্ধিমান প্রজাতিরও এ ধরনের এনার্জি উৎপাদন করার সম্ভাবনা খুবই কম। আর এখন পর্যন্ত কোনো শনাক্তকরণ পদ্ধতি নেই যা প্রমাণ দিতে পারে যে, বেতার তরঙ্গগুলো অ্যালিয়েনদের সৃষ্টি।’

এসব বেতার তরঙ্গ মাত্র কয়েক মিলি সেকেন্ড স্থায়ী ছিল। তাই কোথা থেকে এসেছে তা সঠিকভাবে নির্ধারণ করাটা বেশ কঠিন।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2011-2020 BanglarKagoj.Net
Theme Developed By ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!