1. monirsherpur1981@gmail.com : banglar kagoj : banglar kagoj
  2. admin@banglarkagoj.net : admin :
বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ০৬:৪৫ পূর্বাহ্ন

এমপি আনার হত্যা: সেপটিক ট্যাংকে পাওয়া মাংস মানুষের

  • আপডেট টাইম :: মঙ্গলবার, ১১ জুন, ২০২৪
বাংলার কাগজ ডেস্ক : ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনার হত্যায় তল্লাশি চালিয়ে, সঞ্জীবা আবাসনের সেপটিক ট্যাংক থেকে উদ্ধার হওয়া পচে যাওয়া মাংসের টুকরা মানুষের। প্রাথমিকভাবে ফরেনসিক পরীক্ষার পর বিশেষজ্ঞরা এই তথ্য জানিয়েছেন। নতুন করে ফরেনসিকে পাঠানো হয়েছে নিউটাউনের বাগজোলা খাল থেকে উদ্ধার হওয়া হাড়গোড়। উদ্ধার হওয়া মাংস এবং হাড়, এমপি আনারের কি না তা জানতে ডিএনএ পরীক্ষা করা হবে।

সে কারণেই খুব শিগগিরই সংসদ সদস্য আনারের পরিবারের সদস্যদের খবর পাঠানোর প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। গত রবিবার (৯ জুন) খাল থেকে উদ্ধার হয়েছে বড় ও মাঝারি সাইজের সাতটি এবং বুক-পাঁজরসহ ১২টি হাড়। হাড়গুলো মূলত হাতের এবং কোমর থেকে পায়ের হাঁটুর।

এদিকে গোয়েন্দাদের জিজ্ঞাসাবাদে সিয়াম হোসেন জানিয়েছেন, তিনি পলাতক আখতারুজ্জামান শাহিনের অধীনে মাসিক ৬০ হাজার টাকা বেতনে কাজ করতেন।

শাহিনের নির্দেশেই তিনি জিহাদকে মুম্বাই থেকে কলকাতায় এনেছিলেন। তাকে রাজারহাটে একটি ভাড়া ফ্ল্যাটে রেখেছিলেন।

এ ছাড়া খুনের জন্য ব্যবহৃত অস্ত্র, পলিথিন, ট্রলি ব্যাগ সব কিছুই কিনে আনা হয়েছিল নিউ মার্কেট এলাকা থেকে। অন্য দুই অভিযুক্ত ফয়সাল ও মুস্তাফিজ রহমান মাংস কিমা করার মেশিন কিনে এনেছিলেন।আনারকে হত্যা করার পর তার মাংস এবং হাড় আলাদা করা হয়। তারপর ছোট ছোট টুকরা এবং কিমা করা হয় ওই মেশিনে। ওই মেশিন এখন কোথায় তা জানেন শুধু ফয়সাল সাজি।

মাংসের টুকরা ও হাড় উদ্ধার হলেও এখনো খোঁজ নেই সংসদের মাথার খুলি, কিংবা ব্যবহার করা অস্ত্রের। সিয়াম জানিয়েছেন, তারা একটি গাড়ি ভাড়া করে কৃষ্ণমাটিতে গিয়ে ট্রলিব্যাগ থেকে হাড় এবং মাথার অংশ ট্রলি থেকে বের করে খালের মধ্যে ছুড়ে দিয়েছিলেন।

পশ্চিমবঙ্গ গোয়েন্দাদের দাবি, আরো কয়েক ধাপে, ভারতীয় নৌ সেনার সাহায্যে তল্লাশি করা হবে নিউটাউন অন্তর্গত ভাঙরের সাতুলিয়া এলাকার বাগজোলা খালে। তখন আরো দেহাংশ মিলতে পারে।

সূত্র : আনন্দবাজার

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2011-2020 BanglarKagoj.Net
Theme Developed By ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!