1. monirsherpur1981@gmail.com : banglar kagoj : banglar kagoj
  2. admin@banglarkagoj.net : admin :
মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই ২০২২, ১০:২১ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::

স্বামীর নির্যাতন সইতে না পেরে স্ত্রীর আত্মহত্যা: আজও গ্রেফতার হয়নি স্বামী

  • আপডেট টাইম :: শুক্রবার, ২৪ জুন, ২০২২

নালিতাবাড়ী (শেরপুর) : বিয়ের পর থেকে চুন থেকে পান খসলেই চলে আসা স্বামীর নির্যাতন সইতে না পেরে অবশেষে বিষপানে আত্মহত্যার দুই মাস পেরিয়ে গেলেও গ্রেফতার হয়নি স্বামী জালাল উদ্দিন। ফলে ন্যায় বিচার নিয়ে শঙ্কায় ওই গৃহবধূর তিন সন্তান ও অন্য স্বজনেরা।

জানা গেছে, শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার নয়াবিল ইউনিয়নের হাতিপাগার গ্রামের যমকান্দায় জালাল উদ্দিনের সাথে প্রায় ১৮ বছর আগে বিয়ে হয় নয়াবিল গ্রামের নূর নাহারের। বিয়ের পর থেকে পারিবারিক নানা বিষয় নিয়ে ঝগড়া হলেই স্বামী জালাল চড়াও হতেন স্ত্রী নূর নাহারের উপর। এ নিয়ে অসংখ্যবার পারিবারিক বৈঠক এমনকি উভয়ের মাঝে ছাড়াছাড়ি পর্যন্ত গড়ায়। তবু সন্তানদের কথা বিবেচনায় এনে বারবার সংসারে মনযোগী হওয়ার চেষ্টা করে নূর নাহার।

সবশেষ চলতি বছরের গেল রমজান মাসে ১২ এপ্রিল বিকেলে মাদরাসা পড়–য়া কিশোর ছেলে নাজমুল হাসান (১২) এর পিঁয়াজু খাওয়ার আবদারকে কেন্দ্র করে জালাল উদ্দিন ছেলেকে মারধর করে। এতে মা নূর নাহার প্রতিবাদ করলে তার উপরও চড়াও হয় স্বামী জালাল। একপর্যায়ে নির্যাতন সইতে না পেরে ভয়ে ঘরের দরজা আটকে ভিতরে বসে থাকে। এসময় স্বামী জালাল নূর নাহারকে মেরে ফেলার হুমকী দেয় ও দরজায় দা নিয়ে বসে থাকে। একপর্যায়ে নূর নাহার ঘরে থাকা কীটনাশক পান করে আত্মহত্যার চেষ্টা চালায়। ততক্ষণে খবর পেয়ে নূর নাহারের পিতাসহ স্বজনেরা বাড়ি আসেন এবং গুরুতর নূর নাহারকে উদ্ধার করে প্রথমে নালিতাবাড়ী পরে শেরপুর জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। অবস্থার অবনতি ঘটলে তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেলে পাঠানো হয়। পাঁচদিন চিকিৎসার পর আইসিইউতে থাকাবস্থায় ১৮ এপ্রিল মারা যান নির্যাতিতা গৃহবধূ নূর নাহার।

এ ঘটনায় নূর নাহারের পিতা নূর আলী বাদী হয়ে শেরপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে অভিযোগ দাখিল করলে আদালত বিষয়টি আমলে নিয়ে নালিতাবাড়ী থানায় এজাহার গ্রহণ পূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ প্রদান করেন। চলতি জুনের প্রথমদিকে মামলাটি এজাহার হিসেবে অন্তর্ভূক্ত করা হলেও ধরাছোয়ার বাইরে রয়ে গেছে অভিযুক্ত স্বামী জালাল উদ্দিন।

তবে জালাল উদ্দিন নির্যাতনের অভিযোগ অস্বীকার করে জানিয়েছেন, সংসারে সামান্য কিছু হলেই তার স্ত্রী এর আগেও একাধিকবার আত্মহত্যার চেষ্টা চালিয়েছে। কিন্তু তিন সন্তানের মুখের দিকে তাকিয়ে তিনি সব সহ্য করেন।

এ বিষয়ে নালিতাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বছির আহমেদ বাদল জানান, মামলা এজাহার হিসেবে অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে। আসামীকে গ্রেফতারে মামলার তদন্ত কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

 

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2011-2020 BanglarKagoj.Net
Theme Developed By ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!