1. monirsherpur1981@gmail.com : banglar kagoj : banglar kagoj
  2. admin@banglarkagoj.net : admin :
রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ০৬:৩২ পূর্বাহ্ন

“ওরা আমার স্বামীকে হত্যা করেছে, আমি তাদের ফাঁসি চাই”

  • আপডেট টাইম :: সোমবার, ১২ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪
মোঃ সাগর আলী, নীলফামারী : ‘ওরা আমার স্বামীকে হত্যা করেছে, আমি তাদের ফাঁসি চাই’ বললেন নিহত মিলনের স্ত্রী মুক্তা বানু। নীলফামারীর জলঢাকা উপজেলার বালাগ্রাম ইউনিয়নের চাওড়াডাঙ্গী মাঝাপাড়ায় মার্বেল খেলাকে কেন্দ্র করে মো. তোফাজ্জল হোসেনের ছেলে ভ্যান চালক মোঃ মিলন ইসলামকে হত্যার ঘটনা ঘটেছে। ছেলের মৃত্যুতে দিশেহারা হয়ে পড়েছে বৃদ্ধ পিতা-মাতা, স্ত্রী ও তিন সন্তান। তার আয়ে চলতো পুরো পরিবার। হত্যাকারিদের উপযুক্ত বিচার দাবি করেন পরিবার ও এলাকাবাসি। এ ঘটনায় মিলনের স্ত্রী মুক্তা বানু বাদী হয়ে জলঢাকা থানায় মামলা দায়ের করেন।
গ্রামবাসীসহ হত্যার শিকার ভ্যান চালকের স্বজনরা জানায় হত্যাকান্ডের পর বিক্ষুব্ধ গ্রামবাসী জড়িত ৭জনের মধ্যে দুইজনকে আটক করে পুলিশকে দিলেও পুলিশ অপর পলাতক ৫ জন আসামীকে এখনও গ্রেপ্তার করতে পারেনি। অভিযোগ উঠেছে আসামীরা প্রভাবশালীদের ছত্রছায়ায় থেকে উল্টো হুমকী ধমকি দিয়ে যাচ্ছে। এমনকি গ্রেপ্তারকৃত দুই আসামীকে পুলিশ রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ ও আদালতে স্বীকারোক্তি জবানবন্দীর ব্যবস্থাও করেনি বলে অভিযোগ করা হয়েছে।
এ ঘটনায় অভিযুক্তরা হলেন ওই এলাকার মোঃ আনিছুর রহমানের ছেলে মোঃ খোকন ইসলাম (২০), মোঃ সিরাজুল ইসলামের ছেলে মোঃ বিপুল ইসলাম (২৭) মোঃ আনিছুর রহমানের ছেলে মোঃ রিপল ইসলাম(২৫), সিরাজুল ইসলামের ছেলে মোঃ স্বপন ইসলাম (২৪), মৃত. আইনুদ্দিন ছেলে মোঃ আনিছুর রহমান @ বাচ্চাউ (৪৮) ও মোঃ সিরাজুল ইসলাম (৫২), মোঃ আব্দুল কাদেরের ছেলে মোঃ মানিক ইসলাম (৪০)।
সরেজমিনে গিয়ে প্রত্যক্ষদর্শীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, গত মঙ্গলবার (৩০ জানুয়ারী) বিকালে মিলনের বাড়ীর খুলিতে রাস্তার পার্শ্বে খোকন ইসলাম, বিপুল ইসলাম, রিপল ইসলাম , স্বপন ইসলাম টাকার বিনিময়ে মার্বেল খেলতেছিল। সে সময় রাস্তা চলাচল প্রতিবন্ধকতা সহ বাড়ীর সামনে খেলাধুলা করাটা মিলনের নিকট বেমানান মনে হওয়ায় খেলা বন্ধ করতে বলে এবং অন্যত্র খেলাধূলা করার জন্য বলেন । কিন্তু তার কথা কোন গুরুত্ব না দিয়ে উক্ত স্থানে মার্বেল খেলা খেলতে থাকে। পুনরায় তাদেরকে উক্ত স্থান থেকে চলে যাওয়ার জন্য বলেন তখন তাদের সাথে তর্কাতর্কি শুরু হয়। তর্কাতর্কির একপর্যায়ে স্বপন মিলনের বাম হাতের বৃদ্ধা আঙ্গুলে কামরে ধরে । বৃদ্ধা আঙ্গুলটি মুখ থেকে বাহির করতে না পারলে স্বপনকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয় । স্বপন ক্ষিপ্ত হয়ে পার্শ্বে থাকা পেয়ারা মোটা ফাল দিয়া হত্যার উদ্দেশ্যে মাথার মাঝখানে জোরে আঘাত করলে সে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে এবং গুরুত্বর রক্তাক্ত জখম প্রাপ্ত হয়। স্বামীকে রক্ষা করতে স্ত্রী মুক্তা বানু, মা লিলি বেগম ও স্থানীয় ওমর ফারুক এগিয়ে আসলে অভিযুক্তরা তাদেরকেও মারতে শুরু করে। পরে এলাকাবাসী এগিয়ে এসে মিলন কে উদ্ধার করে ভ্যান করে জলঢাকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স জরুরী বিভাগে ভর্তি করে। কর্তব্যরত চিকিৎসক শারীরিক অবস্থার অবনতি দেখে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে উন্নত চিকিৎসার জন্য রেফার্ড করেন। রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সেখানে মিলন ইসলাম মারা যায়।
মৃত.মিলনের পিতা তোফাজ্জল হোসেন বলেন, আমার একমাত্র সন্তান। আমার ছেলেকে তারা হত্যা করেছে। আমার নাতি নাতনি গুলোর কি হবে। আমি তাদের ফাঁসি চাই। মিলনের মা হত্যাকারিদের ফাঁসির দাবি করেন।
এলাকার আইয়ুব আলী বলেন, কিছু দিন আগে স্বপনসহ তার লোকজন আমার স্ত্রীর হাত ডাংগে ভেঙ্গে দেয়। আমি তার বিচার এখন পাই নাই। তাদের যদি শাস্তি দেওয়া না হয় তাহলে তাদের অত্যাচারে নিরাপদ ও সুন্দর ভাবে জিবন যাপন করতে পাব না। আমরা তাদের কঠিন শাস্তি চাই।
নিহত মিলনের স্ত্রী মুক্তা বানু বলেন,’আমি কি বলবো, কি করবো কিছুই বুঝতেছি না। কিভাবে সংসার চলবে। কিভাবে সন্তানদের মানুষ করবো। সামান্য মার্বেল খেলাকে কেন্দ্র করে তারা আমার স্বামীকে হত্যা করলো। তাদের আমি ফাঁসি চাই।’
জানতে চাইলে জলঢাকা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মুক্তারুল আলম বলেন, মিলন হত্যার বিষয়ে একটি মামলা হয়েছে। দুই জন আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি আসামি গুলোকে গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2011-2020 BanglarKagoj.Net
Theme Developed By ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!