1. monirsherpur1981@gmail.com : banglar kagoj : banglar kagoj
  2. admin@banglarkagoj.net : admin :
বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ০৬:২৮ পূর্বাহ্ন

দুবার ব্যর্থ হয়ে তৃতীয় দফায় হত্যা, ভারত যাবে ডিবির তিন সদস্য

  • আপডেট টাইম :: শনিবার, ২৫ মে, ২০২৪
ঢাকা: দুবার ব্যর্থ হয়ে তৃতীয় দফায় ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনারকে হত্যা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) অতিরিক্ত কমিশনার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ।

এমপি হত্যার এখনো সুনির্দিষ্ট কারণ জানতে পারেনি ডিবি। লাশ কোথায় তারও কোনো খোঁজ মেলেনি। হত্যাকারীরা তাকে হত্যার পর চারটি মোবাইল নিয়ে বেনাপোল সীমান্তে আসে।

এরপর তারা হত্যায় তার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে তাদের কলও করে।

তবে ধারণা করা হচ্ছে, ব্যাবসায়িক লেনদেন, আধিপত্য বিস্তারের কারণসহ অনেক কিছু থাকতে পারে এ হত্যাকাণ্ডের নেপথ্যে। অন্যদিকে আজ রাত বা আগামীকাল ভোরের মধ্যে এ ঘটনায় ডিবির তিন সদস্যের একটি টিম ভারত রওনা হবে।আজ শনিবার (২৫ মে) দুপুরে রাজধানীর মিন্টো রোডে ডিবির কনফারেন্সরুমে এসব তথ্য জানান ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ।

তিনি আরো বলেন, ‘ট্র্যাপে ফেলে টাকা হাতিয়ে নিতে তাকে ক্লোরোফোম দিয়ে অন্যরকম করা হয়েছিল।’ হারুন বলেন, ‘হত্যাকারীরা তাকে প্রথমে অপহরণের পর ফ্ল্যাটে নেয়। এরপর হত্যাকারীরা তার ফোনের একটি নিয়ে অন্য জায়গায় চলে যায়। যাতে বোঝা যায়, তিনি সেই অন্য জায়গায় ছিলেন।

ভারতে ডিবির টিম যাওয়ার ব্যাপারে তিনি বলেন, ‘এ ব্যাপারে আমাদের কথা হয়েছে। তারা বলেছে, ডিবির একটি টিম যেন ভারতে যায়। এ জন্য আমাদের জিও হয়েছে। আজ রাতে অথবা আগামীকাল ভোরের মধ্যে ডিবির তিন সদস্যের টিম ভারতে রওনা হবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমাদের পাশাপাশি কলকাতা টিমও কাজ করছে।

তবে যারা বাংলাদেশে এসেছেন, তাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি। তাদের কাজ শেষ হলে আমরা রওনা হব। তারা আর আজ ৩টার দিকে আসবে। তারপর উদ্বোধন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে আমরাও যাব। পুলিশ কমিশনারের সাথে কথা বলব, তারপর সেটি আজ রাতেও হতে পারে, আগামীকাল ভোরের মধ্যেও হতে পারে।’

লাশ পাওয়া গেল না, তাহলে কিসের পরিপ্রেক্ষিতে এই ঘটনাকে মার্ডার বলছেন- এমন প্রশ্নের জবাবে হারুন বলেন, এমন ঘটনা আছে, বছরের পর বছর লাশ পাওয়া যায়নি। তিন বছর লাশ পাওয়া যায়নি- এমনও আছে।ডিবি প্রধান বলেন, ‘এমপি আনারকে হত্যার পরিকল্পনা আগেও হয়েছে। নির্বাচনের আগে এবং জানুয়ারির মাঝামাঝি দেশে তাকে হত্যার পরিকল্পনা করা হয়। দুবার ব্যর্থ হওয়ার পর তৃতীয় দফায় তাকে হত্যা করতে সক্ষম হয় হত্যাকারীরা।’

হত্যাকাণ্ডের মোটিভ কী হতে পারে–সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে ডিবিপ্রধান বলেন, ‘স্পেসিফিক রিজন বলতে পারছি না। অনেক মোটিভ হতে পারে। পূর্বশত্রুতার জেরে হতে পারে, আর্থিক লেনদেন সংক্রান্ত হতে পারে, রাজনৈতিক বিষয়ও থাকতে পারে। এসব বিষয় জানতে তদন্ত চলছে। তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত বলা যাচ্ছে না।’

তিনি বলেন, ‘আমরা সব কিছুই বিচার-বিশ্লেষণ করব। আসামিরা অনেক কথাই বলছে, তদন্তের স্বার্থে বলছি না।’

কলকাতায় হত্যা মামলার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘তারা নিশ্চয়ই আলামত পেয়েছে। এ জন্য মামলা হয়েছে। ভারতীয় পুলিশ অত্যন্ত গুরুত্বের সঙ্গে এই হত্যাকাণ্ডের তদন্ত করছে। হত্যাকাণ্ডের সুস্পষ্ট প্রমাণ আছে, তবে তদন্তের স্বার্থে এখন জানানো যাবে না।’

হারুন বলেন, ‘বাংলাদেশে ভারতীয় পুলিশের একটি টিম ২-৩ তিন ধরে তদন্ত করছে। তারা আমাদের আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদ করছে। আমরাও যাব। অনেক বিষয় নিয়ে কাজ করছি। আমাদেরও একটি টিম কলকাতা যাবে।’

গত ১২ মে চিকিৎসার জন্য ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ থেকে চুয়াডাঙ্গার দর্শনার গেদে সীমান্ত দিয়ে ভারতে যান সংসদ সদস্য আনার। ওঠেন পশ্চিমবঙ্গের বরাহনগর থানার মণ্ডলপাড়া লেনে গোপাল বিশ্বাস নামে এক বন্ধুর বাড়িতে। পরদিন ডাক্তার দেখানোর কথা বলে বাড়ি থেকে বের হন। এর পর থেকেই রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ আনোয়ারুল আজীম।

বাড়ি থেকে বেরোনোর পাঁচ দিন পর গত ১৮ মে বরাহনগর থানায় আনার নিখোঁজের বিষয়ে একটি জিডি করেন বন্ধু গোপাল বিশ্বাস। এরপরও খোঁজ মেলেনি তিনবারের এই সংসদ সদস্যের। গত বুধবার (২২ মে) হঠাৎ খবর ছড়ায়, কলকাতার পার্শ্ববর্তী নিউটাউন এলাকায় বহুতল সঞ্জিভা গার্ডেনস নামে একটি আবাসিক ভবনের বিইউ ৫৬ নম্বর রুমে সংসদ সদস্য আনার খুন হয়েছেন। ঘরের ভেতর পাওয়া গেছে রক্তের ছাপ। তবে ঘরে মেলেনি মরদেহ।

হত্যাকাণ্ড সংঘটিত করার অভিযোগে গ্রেপ্তার সৈয়দ আমানুল্লাহ আমান ওরফে শিমুল ভূঁইয়া, ফয়সাল আলী সাহাজি ওরফে তানভীর ভূঁইয়া ও শিলাস্তি রহমানের আট দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন দেশের আদালত। অন্যদিকে হত্যাকাণ্ডে অংশ নেওয়া জিহাদ হাওলাদার ওরফে কসাই জিহাদকে ১২ দিনের রিমান্ড দিয়েছেন ভারতের বারাসাতের আদালত।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2011-2020 BanglarKagoj.Net
Theme Developed By ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!