1. nirjoncomputer@gmail.com : Alamgir Jony : Alamgir Jony
  2. admin@banglarkagoj.net : admin :
বৃহস্পতিবার, ০৬ অগাস্ট ২০২০, ০৪:৩০ অপরাহ্ন

বান্দরবানে এমএন লারমা গ্রুপের ৬ জনকে হত্যা : ১০ জনের নামে মামলা

  • আপডেট টাইম :: শুক্রবার, ১০ জুলাই, ২০২০
  • ৪৮ বার পড়া হয়েছে

এন এ জাকির, বান্দরবান : বান্দরবানের বাঘমারা এলাকায় জেএসএস এমএন লারমা গ্রুপের ৬ নেতাকর্মী হত্যার ঘটনায় ১০ জনের নামে মামলা দায়ের করা হয়েছে।
বুধবার (৮ জুলাই) রাতে জেএসএস সংস্কার পন্থী এমএন লারমা গ্রুপের বান্দরবান জেলার সাধারণ সম্পাদক উবা মং মার্মা বাদী হয়ে বান্দরবান সদর থানায় এ মামলা দায়ের করেন। এতে ১০ জনকে এজাহার নামীয় এবং অজ্ঞাত ১০ জনসহ মোট ২০ জনকে আসামী করা হয়েছে।
জানা গেছে, সদর উপজেলার বাঘমারা এলাকায় জেএসএস এমএন লারমা গ্রুপের বান্দরবান জেলার সভাপতি রতন তঞ্চগ্যাসহ ৬ নেতাকর্মী হত্যার ঘটনায় পার্বত্য চট্টগ্রাম জন সংহতি সমিতি জেএসএস (সন্তু লারমা গ্রুপের) ১০ জনের নামে এবং অজ্ঞাত ১০ জনসহ মোট ২০ কে আসামী করে সদর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন এমএন লারমা গ্রুপের বান্দরবান জেলার সাধারণ সম্পাদক উবা মং মার্মা। বুধবার সন্ধ্যায় নিহতদের লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করার পর রাতে তিনি এ মামলা দায়ের করেন।
এসময় বাদী এজাহারে হত্যার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে ১০ জনের নাম উল্লেখ করেন। এরা হলেন- জরিপ কুমার তংঞ্চগ্যা (৫০) উসাইনু মার্মা (৩৮) বিনয় লাল চাকমা (৪৫) শান্তি বিকাশ চাকমা (৩৮) আপাই মার্মা (৩৮) নিরেক চাকমা (৫০) অংপ্রু মার্মা (৪৫) সুমন চাকমা (৩৫) মং প্রু মার্মা (৪৮) মং শৈসা মার্মা (৪০)।
এছাড়াও মামলায় আরো ১০ জনকে অজ্ঞাত আসামী করা হয়। তবে মামলার কোন আসামী এখন পর্যন্ত গ্রেপ্তার হয়নি।
এদিকে এ ঘটনার পর থেকে বাঘমারাসহ আশপাশের বেশ কিছু এলাকার মানুষ আতঙ্কে রয়েছে। অনেকে নিজের ঘরবাড়ি ছেড়ে অন্যত্র অবস্থান নিয়েছে।
বান্দরবান সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শহিদুল ইসলাম বলেন, এমএন লারমা গ্রুপের ৬ নেতাকর্মী হত্যায় সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছে। এতে ১০ জনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে এবং অজ্ঞাত ৮/১০ জনকে আসামী করা হয়েছে। আসামীদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।
উল্লেখ্য, গত ১৩ মার্চ চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ২৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি নিয়ে বান্দরবান জনসংহতি সমিতি জেএসএস এমএন লারমা গ্রুপের আত্মপ্রকাশ ঘটে। এরপর গত ৩১ মে থেকে তারা সদর উপজেলার রাজবিলা ইউনিয়নের বাঘমারা এলাকায় একটি অফিস ভাড়া নিয়ে তাদের কার্যক্রম শুরু করে। গত ৭ জুলাই সকাল সাড়ে ৬টার দিকে সংগঠনের সভাপতি রতন তংঞ্চগ্যার বাসায় সংগঠনের নেতাকর্মীরা সকালের খাবার খাওয়ার জন্য জড়ো হলে জেএসএস সন্তু লারমার স্বশস্ত্র গ্রুপের সন্ত্রাসীরা ব্রাশ ফায়ার করে এমএন লারমা গ্রুপের ৬ নেতাকর্মীকে হত্যা করে বলে অভিযোগ করে জেএসএস এমএন লারমা গ্রুপ।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2011-2020 BanglarKagoj.Net
Theme Developed By ThemesBazar.Com