1. monirsherpur1981@gmail.com : banglar kagoj : banglar kagoj
  2. admin@banglarkagoj.net : admin :
মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২২, ১২:৪৪ অপরাহ্ন

পর্যটক টানতে গজনীতে যুক্ত হলো ক্যাবল কার, ঝুলন্ত ব্রীজ, জীপ লাইনিং

  • আপডেট টাইম :: রবিবার, ১৯ ডিসেম্বর, ২০২১

মনিরুল ইসলাম মনির : পর্যটকদের আকৃষ্ট করতে শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলার গজনী অবকাশ কেন্দ্রে যুক্ত করা হলো ক্যাবল কার, জীপ লাইনিং ও ঝুলন্ত ব্রিজ। বৃহত্তর ময়মনসিংহের মধ্যে এই প্রথম কোন বিনোদন কেন্দ্রে এসব নতুন ও আকর্ষণীয় রাইড যুক্ত হওয়ায় এখানকার পর্যটন শিল্পের বিকাশ সমৃদ্ধ হবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

গতকাল শনিবার (১৮ ডিসেম্বর) দুপুরে জেলা প্রশাসক মো. মোমিনুর রশীদ প্রধান অতিথি হিসেবে এসব নতুন রাইড উদ্বোধন করেন।

সূত্র জানায়, পর্যটক টানতে নতুন কোন উদ্যোগ গ্রহণ না করা, প্রয়োজনীয় সংস্কারের অভাব ও বিগত প্রায় দুই বছর যাবত করোনার প্রভাবে গজনী অবকাশ কেন্দ্রটি অনেকটা মুখ থুবড়ে পড়েছিল। বর্তমানে দেশের করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হলেও ভ্রমণ পিপাসুদের আনাগোনা লক্ষ্যণীয় ছিল না। এমতাবস্থায় পর্যটকদের আকৃষ্ট করতে নতুন উদ্যোমে গারোপাহাড় বেষ্ঠিত গজনী অবকাশ কেন্দ্রে নতুন রাইড স্থাপনের পরিকল্পনা করেন অবকাশ কেন্দ্রে ব্যক্তিগত উদ্যোগে গড়ে তোলা মিনি চিড়িয়াখানার সত্ত্বাধিকারী ফরিদ আহম্মেদ। তিনি নবাগত জেলা প্রশাসক মোঃ মোমিনুর রশীদ এর দ্বারস্থ হলে জেলা প্রশাসক আশ্বস্ত করেন এবং প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেন। পরে দশ বছরের জন্য জেলা প্রশাসন থেকে লীজ নিয়ে প্রতিবছর তিন লাখ টাকা পরিশোধসাপেক্ষে চুক্তিতে প্রায় ত্রিশ লাখ টাকা ব্যয়ে সম্পূর্ণ ব্যক্তিউদ্যোগে ফরিদ আহম্মেদ স্থাপন করেন ক্যাবল কার ও ঝুলন্ত সেতু। পাশাপাশি পুরনো লেকের উপর জীপ লাইনিং স্থাপন করে জেলা প্রশাসন। গতকাল শনিবার এ তিনটি নতুন রাইড আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন ঘোষণা করা হয়।

এসময় অন্যান্যের মাঝে জেলা প্রাশসক মোঃ মোমিনুর রশীদ এর সহধর্মিনী ফেরদৌসী জান্নাত প্রিয়া, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) ফরিদা ইয়াসমিন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট তোফায়েল আহম্মেদ, ঝিনাইগাতী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহেল ওয়ারেজ নাঈম, ইউএনও ফারুক আল মাসুদ, সহকারী কমিশনার (ভূমি) জয়নাল আবেদীন, নতুন সংযোজিত এসব রাইডের ইজারাদার ফরিদ আহম্মদসহ প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা ও জেলায় কর্মরত সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এখন থেকে নতুন এ তিনটি রাইড পর্যটকদের জন্য উন্মুক্ত থাকবে। জীপ লাইনিংয়ে তারে ঝুলে লেকের উপর দিয়ে অন্তত প্রায় তিনশ মিটার অতিক্রম করতে পারবেন পর্যটকরা। এর শুভেচ্ছা মূল্য এখনও নির্ধারণ করা না হলেও ৫০ টাকা হতে পারে বলে ধারণা পওয়া গেছে। এছাড়াও পূর্ব পাশে মিনি চিড়িয়াখানার কাছাকাছি ঝুলন্ত ব্রিজে ওঠে এ পাহাড় থেকে ও পাহাড়ে ভ্রমণ করা যাবে মাত্র ২০ টাকায়। এক পাহাড় থেকে অন্য পাহাড়ের লেকের উপর দিয়ে ক্যাবল কারে ভ্রমণ করতে লাগবে ৫০ টাকা।

উদ্যোক্তা ফরিদ আহম্মেদ জানান, জেলা প্রশাসনের কাছ থেকে লীজ নিয়ে মিনি চিড়িয়াখানা আগেই গড়ে তোলেছিলাম। কিন্তু নতুন রাইড স্থাপনে সহযোগিতা পাচ্ছিলাম না। নতুন ডিসি স্যার আসার পর আমি আমার পরিকল্পনার কথা জানালে তিনি সম্মত হন এবং প্রয়োজনীয় সবধরণের সহযোগিতা করেন। আশা করছি, নতুন এ রাইডের মাধ্যমে পর্যটক আকৃষ্ট হবে এবং গজনী নতুনরূপে উদ্ভাসিত হবে। এতেকরে শেরপুরের পর্যটন আরও এগিয়ে যাবে।

উদ্বোধনকালে জেলা প্রশাসক মোঃ মোমিনুর রশীদ জানান, মানুষকে কিভাবে আকৃষ্ট করা যায় এ কথা চিন্তা করে এখানে তিনটি রাইড স্থাপনের উদ্যোগ নেই। আমি আশা করি, একে কেন্দ্র করে গজনী নতুন মাত্রা পাবে। যার মাধ্যমে দেশ এবং দেশের বাইরে থেকেও গারোপাহাড়ের সৌন্দর্য দেখতে বহু মানুষ এখানে আসবে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2011-2020 BanglarKagoj.Net
Theme Developed By ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!