1. nirjoncomputer@gmail.com : Alamgir Jony : Alamgir Jony
  2. admin@banglarkagoj.net : admin :
মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১:০৯ পূর্বাহ্ন

দায়িত্ববোধের কলম

  • আপডেট টাইম :: বুধবার, ৩ জুন, ২০২০
– মনিরুল ইসলাম মনির –
 
শহীদের রক্তের সাথে বিদ্যানের কালির তুলনা এমনিতেই দেওয়া হয়নি। যেখানে একজন ইসলামের সঠিক পথে জীবন ত্যাগের বিনিময়ে মহান আল্লাহর দরবারে ক্ষমাপ্রাপ্তদের তালিকাভুক্ত হয়ে বিনা হিসেবে জান্নাতে প্রবেশের অধিকার রাখেন। সেখানে একজন কলম সৈনিক তার কালির সঠিক প্রয়োগের মাধ্যমে একই পর্যায়ভুক্ত হবেন এটি সহজ কথা নয়। এ কথার ওজন খুবই ভারি। তাই কালির মর্যাদা রক্ষা করা সদিচ্ছা না থাকলে কঠিন। কঠিন বলেই কালির মর্যাদা রক্ষাকারীদের শহীদের সাথে তুলনা করা হয়েছে। কাজেই সবাই এর মর্যাদা রাখতে পারবেন- বিষয়টি এমন নয়।
আমরা যারা কলম সৈনিক অর্থাৎ সাংবাদিকতার মতো মহান পেশায় নিয়োজিত থেকে সমাজের ভালো-মন্দ তোলে ধরে দেশ ও মানুষের কল্যাণে নিয়োজিত, তাদের ক্ষেত্রে এ দায়িত্ববোধ অনেক বেশি। আমাদের লেখনিতে অনেক কিছুই পরিবর্তন হতে পারে। তাই খুব সতর্ক ও সাবধানতার সাথে কলমের গতিপথ পরিচালনা জরুরী। ন্যুনতম স্বার্থের কাছে আমাদের কালি বিক্রি হয়ে গেলে শহীদের মর্যাদা তো দূরের কথা জাহান্নামের কোন স্তরে জায়গা হবে সেটিই ভেবে দেখার বিষয়। আর পৃথিবীতেও আমাদের আস্তকুড়ে ফেলা হবে এটা নির্ধিদ্বায় বলা যায়। কাজেই কলম আবেগে বা স্বার্থে নয়, পরিচালিত হওয়া চাই পরিচ্ছন্ন দায়িত্ববোধ থেকে।
আমি বলছি না শতভাগ সঠিক রাখা সম্ভব। তবে আমাদের চেষ্টায় শতভাগ রাখা চাই। আমরা গায়েব জানি না। কাজেই না জানার কারণে বা তথ্যদাতাগণ ভুল তথ্য সরবরাহের ফলে কখনও কখনও আমরা ভুল করতে পারি। এটা খুব স্বাভাবিক। কিন্তু সর্বোচ্চ দায়িত্ববোধ ও দেশ-জনগণের স্বার্থকে মাথায় রেখে কাজ করতে হবে। সব ঠিক থাকলে সেক্ষেত্রে ভুলের ক্ষমা আশা করা যেতে পারে, অন্যথায় নয়।
ভাবতে পারি না, সামান্য স্বার্থের কারণে কিভাবে আমাদের কালি ও কলম বিপরীতে চলে? কিভাবে প্রভাবের কাছে আমরা পরাজিত হই? অসহায়ত্ব-অবিচারের বিরুদ্ধে জ্বলে না উঠে কিভাবে বসে থাকি বা পক্ষপাতমূলক সিদ্ধান্ত নেই? আমাদের কি ন্যুনতম মৃত্যুর ভয় জাগে না? হ্যাঁ, নানা কারণে আমাদের পছন্দ-অপছন্দ থাকতে পারে, নানা কারণে কারও বিষয়ে অভিমান থাকতে পারে। তাই বলে সামান্য স্বার্থ আর প্রভাবের কাছে আমাদের সিদ্ধান্ত বিক্রি হয়ে যাবে?
ব্যক্তিগতভাবে এই আঠারো বছরে কম হুমকী-ধমকী, হামলা-মামলার মুখোমুখি হইনি। কম চোখ রাঙানি দেখিনি। অতি সম্প্রতিও সত্যপ্রকাশে আঁতে ঘাঁ লাগায় প্রতিহিংসামূলকভাবে আমার বিরুদ্ধে কতিপয়দের লেলিয়ে দেওয়া হয়েছে। বাজে মন্তব্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার, বাজে ধরণের মামলা- সব আয়োজন শেষ করা হয়েছে। কিন্তু নিজের আস্থা-সিদ্ধান্ত ও সত্যনিষ্ঠতা কোনকিছুতেই ভাটা পড়তে দেইনি। শুধুমাত্র নিজের দায়িত্ববোধ থেকে সব সহ্য করে মাথা পেতে নিচ্ছি। অথচ আপোষ করলেই মিলে যেতো অর্থ ও সুযোগ-সুবিধা। নানাভাবে সুযোগের প্রস্তাব পাওয়ার পরও ওইসব স্বার্থকে জলাঞ্জলি দিয়ে সত্যপ্রকাশে অটুট থেকে যাচ্ছি। এরপরও মাঝে মাঝে ভাবি, কোথায় যেন স্বচ্ছতায় ভুল করলাম? কোথায় যেন আমার লেখনিতে কাউকে অযথা হয়রাণী করলাম? এসব ভাবনায় প্রায়ই হিমশিম খেয়ে যাই। কারণ, এ দায় কখনোই এড়িয়ে যেতে পারব না, কখনোই অন্যায়ভাবে ক্ষতিগ্রস্থের ঋণের বোঝা সইতে পারব না। ‘হিসেবের দিন’ (শেষ বিচারের দিন) আসবে বলে ভয়ে থাকি। অথচ আমরা অনেকেই গা ভাসিয়ে শুধুমাত্র নিজেদের স্বার্থ চরিতার্থ করতে কারও চরিত্র নিয়ে, কারও অসহায়ত্ব নিয়ে খেলা করেতে এতটুকুও বাঁধে না। আমি সবসময় প্রার্থনা করি, হে মহান আল্লাহ! তুমি আমার কলমকে কখনোই ভুল পথে পরিচালিত করতে দিও না, হোক তা নিজেরই অজান্তে! আল্লাহ সকলকে সঠিক বুঝ দান করে দেশ ও দশের কল্যাণে কাজ করার তৌফিক দিন। আমীন!

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2011-2020 BanglarKagoj.Net
Theme Developed By ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!