1. nirjoncomputer@gmail.com : Alamgir Jony : Alamgir Jony
  2. admin@banglarkagoj.net : admin :
রবিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৭:২৮ পূর্বাহ্ন

সাগরকন্যা কুয়াকাটা সেজেছে বাহারী আর বর্ণিল রঙে

  • আপডেট টাইম :: বুধবার, ৫ আগস্ট, ২০২০

রাসেল কবির মুরাদ, কলাপাড়া (পটুযাখালী) : বিশ্বে মহামারী দুর্যোগ করোনাভাইরাসের কারণে অনেকদিন পর্যটকশূন্য সূর্যোদয-সূর্যাস্তের বেলাভূমি সাগরকন্যা কুযাকাটা। সারাদেশ লকডাউন থাকার কারণে পর্যটকবিহীন পালিত হয়েছে ঈদুল ফিতর। সব বাধা-বিপত্তি উপেক্ষা করে কুয়াকাটায় ১ জুলাই পর্যটকদের জন্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে আবাসিক হোটেলসহ ট্যুরিস্ট ব্যবসার সাথে সংশ্লিষ্ট সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলার অনুমতি প্রদান করায় আসতে শুরু করে পর্যটক।
এতে খুশির ছোঁয়া লেগেছে স্থানীয় পর্যটন ব্যবসায়ীদের। ইতিমধ্যেই সাজিয়ে নেয়া হয়েছে আবাসিক হোটেল-রেঁস্তোরা, কেনাবেচা জন্য তৈরি হয়েছে রাখাইন মহিলা মার্কেট, ঝিনুক মার্কেট, বার্মিজ আচার, কাঁকড়া ফ্রাই, পর্যটকদের ছবি তোলার জন্য প্রস্তুত ক্যামেরাম্যান। চটপটি-ফুচকার দোকানে দেখা গেছে মানুষের আনাগোনা, কুয়াকাটার দর্শনীয় স্থানগুলো ভ্রমণ পিপাসা মেটানোর জন্য কাজ করতে প্রস্তুত, মোটরসাইকেল ড্রাইভার, অটোরিকশা চালক, কুয়াকাটা থেকে সমুদ্রপথে বিভিন্ন দ্বীপ ও বনাঞ্চল ভ্রমণ করানোর জন্য প্রস্তুত করা হয়েছে ট্যুরিস্ট বোট, স্পিড বোট এবং ওয়াটার বাইক।
ঝিনুক মার্কেট ব্যবসায়ী মোহাম্মদ শরফুদ্দিন বলেন, ইতিমধ্যেই আমরা পর্যটকদের আনাগোনা দেখতে পাচ্ছি। আমরা আশাবাদী স্বাস্থ্যবিধি মেনে আমাদের ঝিনুক মার্কেটের বেচাকেনা আবার আগের মতই ফিরে আসবে।

কুয়াকাটা হোটেলে নিলঞ্জনার ম্যানেজার মো: হাবিবুর রহমান বলেন, আবাসিক হোটেলগুলো সর্বদা প্রস্তুত রয়েছে স্বাস্থ্যবিধি মেনে, মাস্ক পরিধান করে, পরীক্ষা করে তাদেরকে হোটেলের রুম ভাড়া দেওযা হচ্ছে। পর্যটকদের সর্বোচ্চ গাইড দেওয়ার জন্য প্রস্তুত রয়েছেন হোটেল কর্তৃপক্ষ।
কুয়াকাটা ট্যুরিজম ম্যানেজমেন্ট এ্যাসোসিয়েশনের সিনিয়র সহ-সভাপতি হোসাইন আমির জানান, আমরা আশাবাদী, স্বাস্থ্যবিধি মেনে ভ্রমণপিপাসু পর্যটকগণ ঘুরতে আসবেন সাগরকন্যা কুয়াকাটায়।
কুয়াকাটা ট্যুরিজম এন্ড ট্রাভেলস-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ বেলাল হোসেন বলেন, আমরা আশাবাদী কুয়াকাটায় অনেক ট্যুরিস্টের আগমন হবে এবং আগের মত আবারো প্রাণ ফিরে পাবে।
কুয়াকাটা পৌর মেয়র আ: বারেক মোল্লা জানান, কুয়াকাটা পৌরসভা ও প্রশাসন স্বাস্থ্যবিধি মেনে ট্যুরিস্টদের নিরাপত্তায় সার্বক্ষণিক প্রস্তুত।
কুয়াকাটা ট্যুরিস্ট পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জহিরুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, কুয়াকাটায় ঘুরতে আসা সকল পর্যটকের সেবা ও সহায়তা দেওয়া আমাদের দায়িত্ব ও কর্তব্য। এ জন্য আমরা নিরাপত্তা ব্যবস্থা অনেক জোড়দার করেছি।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2011-2020 BanglarKagoj.Net
Theme Developed By ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!