1. monirsherpur1981@gmail.com : banglar kagoj : banglar kagoj
  2. admin@banglarkagoj.net : admin :
শুক্রবার, ১৪ মে ২০২১, ০৭:২৮ পূর্বাহ্ন

দ্বিতীয় ধাপে আর্থিক অনুদান পাবেন লক্ষাধিক নন-এমপিও শিক্ষক

  • আপডেট টাইম :: বুধবার, ৫ মে, ২০২১

বাংলার কাগজ ডেস্ক : দেশে করোনা পরিস্থিতির কারণে দ্বিতীয় দফায় সরকারি সুবিধাবঞ্চিত শিক্ষক-কর্মচারীদের আর্থিক অনুদান দেয়া হবে। গত দেড় বছর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় নন-এমপিও এসব শিক্ষক-কর্মচারীরা মানবেতর জীবনযাপন করছেন। তাদের কথা বিবেচনা করে আবারও আর্থিক অনুদান দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। তবে এ অনুদান ঈদের পরে দেয়া হবে বলে একাধিক সূত্রে জানা গেছে।

জানা গেছে, গত বছর মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের অধীনে নন-এমপিও ৮০ হাজার ৭৪৭ জন শিক্ষককে পাঁচ হাজার টাকা এবং ২৫ হাজার ৩৮ জন কর্মচারীকে আড়াই হাজার টাকা করে বরাদ্দ দেয়া হয়। এই খাতে সরকার ৪৬ কোটি ৬৩ লাখ ৩০ হাজার টাকা বরাদ্দ দেয়।

এবারও শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে শিক্ষক-কর্মচারীদের তালিকা সংগ্রহ করে অর্থ বরাদ্দ চেয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে প্রস্তাব পাঠিয়েছে অর্থ মন্ত্রণালয়। তাদের বরাদ্দ পাওয়ার পর সারাদেশের কারিগরি, মাদরাসা ও স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কর্মরত নন-এমপিও ৫১ হাজার ২৬৬ জন শিক্ষকের জন্য আলাদা বরাদ্দ চাওয়া হবে।

জানতে চাইলে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেন, নন-এমপিও শিক্ষক-কর্মচারীদের বিশেষ অনুদানের প্রস্তাবটি সরকারের সর্বোচ্চ মহলের অনুমোদনের অপেক্ষায়। তবে এ টাকা তারা ঈদের আগে পাবেন কি-না সেটি নির্ভর করছে ফাইল অনুমোদন ও অর্থ ছাড়ের ওপর। যেহেতু ঈদের আর কয়েকদিন বাকি রয়েছে, তাই এটি ঈদের পরে দেয়া হতে পারে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, নন-এমপিও শিক্ষকদের আবেদনের প্রেক্ষিতে গত বছর তাদের আর্থিক সহায়তা দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। সেজন্য প্রকৃত শিক্ষক-কর্মচারীদের তথ্য খুঁজে বের করতে দায়িত্ব দেয়া হয় বাংলাদেশ শিক্ষা তথ্য ও পরিসংখ্যান ব্যুরোকে (ব্যানবেইস)। প্রতিষ্ঠানের ডাটাবেইসে থাকা ৬৪ জেলার ৮ হাজার ৪৯২টি স্কুল ও কলেজের নন-এমপিও ৮০ হাজার ৭৪৭ জন শিক্ষক এবং ২৫ হাজার ৩৮ জন কর্মচারীসহ মোট এক লাখ পাঁচ হাজার ৭৮৫ জনের তালিকা শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে দেয়া হয়।

ব্যানবেইস মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের তালিকাভুক্ত ইআইএনধারী (শিক্ষা বোর্ডের বৈধ প্রতিষ্ঠান শনাক্তকরণ নম্বর) নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বিশাল সংখ্যক শিক্ষক-কর্মচারীর হালনাগাদ তথ্য সংগ্রহ করে ডাটাবেজ তৈরি করে। এরপর তা স্থানীয় প্রাশাসনের মাধ্যমে যাচাই-বাছাই করা হয়। সেই তালিকার ভিত্তিতে প্রধানমন্ত্রীর ‘বিশেষ অনুদান’ খাত থেকে প্রাপ্ত অর্থ জেলা প্রশাসকদের কাছে সংশ্লিষ্ট নন-এমপিও শিক্ষক-কর্মচারীদের অনুকূলে চেক/ব্যাংক অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে পাঠানো হয়। চলতি বছর একইভাবে এই তালিকা ধরে অনুদানের ফাইল প্রধানমন্ত্রীর কাছে পাঠানো হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র বলছে, সম্প্রতি সরকারের উচ্চ পর্যায়ের একটি বৈঠকে এবারও নন-এমপিও শিক্ষকদের আর্থিক অনুদান দেয়ার বিষয়টি উত্থাপিত হলে সায় মেলে। এরপর অর্থ মন্ত্রণালয় গত বছরের তালিকা ধরে একটি প্রস্তাব প্রধানমন্ত্রীর কাছে পাঠিয়েছেন; যা অনুমোদনের অপেক্ষায়। তার অনুমোদন পেলে ঈদের পরে এ অর্থ বিতরণ করা হতে পারে।

জানতে চাইলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মমিনুর রশিদ বলেন, আমরা গত একমাস আগে নন-এমপিও লক্ষাধিক শিক্ষক-কর্মচারীদের তালিকা অর্থ মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছি। সেটি উচ্চ পর্যায় থেকে অনুমোদন হলে অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে অর্থ ছাড় দেয়া হবে। সেই অর্থ অনুদান হিসেবে তালিকাভুক্তদের মাঝে বিতরণ করা হবে। ঈদের পর ছাড়া সেটি সম্ভব হবে না বলেও জানান তিনি।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2011-2020 BanglarKagoj.Net
Theme Developed By ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!