1. nirjoncomputer@gmail.com : Alamgir Jony : Alamgir Jony
  2. admin@banglarkagoj.net : admin :
বৃহস্পতিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২০, ০১:৪৬ অপরাহ্ন

ভাষা আন্দোলনের পথ ধরেই বাংলাদেশের স্বাধীনতা : মোস্তফা

  • আপডেট টাইম :: বৃহস্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারী, ২০২০
  • ৮২ বার পড়া হয়েছে

বাংলার কাগজ ডেস্ক : ১৯৫২’র ভাষা শহীদদের পবিত্র রক্ত স্রোতের সাথে মিশে আছে বাঙালির জাতীয় মুক্তিসংগ্রামের গৌরবগাঁথা বলে মন্তব্য করে বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া বলেন, ৫২-এর একুশে ফেব্রুয়ারিতে বাংলার ছাত্রসমাজ আত্মদান করে মাতৃভাষার অধিকার প্রতিষ্ঠা করেছিল।

তিনি বলেন, ভাষা আন্দোলনের পথ ধরেই এসেছে বাংলাদেশের স্বাধীনতা। ১৯৫২ সালের সেদিন যদি ভাষা সৈনিকরা ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে রাজপথে না নামতো, তাহলে হয়তো স্বাধীনতার পথ সুগম হতো না। রক্তরাঙা অমর একুশে ফেব্রুয়ারি রক্তের প্লাবনের মধ্য দিয়ে আজ সারা বিশ্বে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের গৌরবময় আসনে আসীন।

বুধবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) নয়াপল্টনের যাদু মিয়া মিলনায়তনে মহান ভাষা শহীদ ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ আয়োজিত আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বাঙালির মূল চেতনাই হলো মাতৃভাষা। পাকিস্তানিরা আমাদের মুখের ভাষা কেড়ে নিতে চেয়েছিল, পরাধীনতার শৃঙ্খলে আবদ্ধ করে রাখতে চেয়েছিল, কিন্তু পারেনি। জাতি হিসেবে একমাত্র বাংলাদেশিদের বুকের রক্ত ঝরাতে হয়েছিল ভাষার জন্য, মা হারিয়েছিল তার সন্তানকে। তাই বর্তমান প্রজন্মের উচিত মাতৃভাষাকে মনে প্রাণে লালন করা।

ন্যাপ মহাসচিব বলেন, প্রকৃতপক্ষে ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি’ যুগে যুগে অনুপ্রেরণার উৎস হয়ে আমাদের চেতনায় সতত বিরাজ করে। বিশেষ করে ’৫২, ’৬৯ এবং ’৭১-এর একুশে ফেব্রæয়ারি দেশের মানুষ জাতীয় মুক্তির সংগ্রামী চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে অনন্য এক স্বতঃস্ফূর্ততায় পালন করেছিল যা নজিরবিহীন। যে জন্য আমাদের জাতীয় মুক্তিসংগ্রামের ইতিহাসে ‘একুশে ফেব্রুয়ারি’ বাঙালির আত্মপরিচয়ের দিন হিসেবে চিহ্নিত।

তিনি বলেন, একুশের ত্যাগ আমাদের শিক্ষা দেয় দেশ ও জাতির কল্যাণে কাজ করার, মাতৃভাষা ও মাতৃভূমির সম্মানজনক স্থানে প্রতিষ্ঠা করার। আশার কথা, একুশে এই চেতনা এখন আরও উজ্জ্বলভাবে পরিলক্ষিত হচ্ছে বাংলাদেশের তরুণ প্রজন্মের মধ্যে। তাদের কাছে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি আর একুশের চেতনা আজ একীভূত। তাদের দেশপ্রেম আজ সকল উচ্চতায় স্থান করে নিয়েছে। বলা যায়, তরুণ সমাজ আজ তার অসীম শুভশক্তি নিয়ে দেশ গড়ায় মগ্ন। তারুণ্যের এই শুভশক্তির প্রভাব দেশব্যাপী। এটাই ইতিহাসের পাঠ, এটাই ইতিহাসের সাফল্য। কারণ, ইতিহাসের সত্য সব সময় প্রতিষ্ঠিত।

বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া’র সভাপতিত্বে আলোচনায় অংশগ্রহন করেন এনডিপি মহাসচিব মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা, লেবার পার্টি মহাসচিব আবদুল্লাহ আল মামুন, দলের ভাইস চেয়ারম্যান স্বপন কুমার সাহা, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. শহীদুননবী ডাবলু, মো. কামাল ভুইয়া, মহানগর সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ মো. নজরুল ইসলাম, যুব ন্যাপ সমন্বয়কারী বাহাদুর শামিম আহমেদ পিন্টু প্রমুখ।

অনুষ্ঠানের শুরুতে দাড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালনের মাধ্যমে ভাষা শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয় এবং অনুষ্ঠান শেষে তাদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2011-2020 BanglarKagoj.Net
Theme Developed By ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!