1. monirsherpur1981@gmail.com : banglar kagoj : banglar kagoj
  2. admin@banglarkagoj.net : admin :
সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩, ০১:২৬ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
নালিতাবাড়ীতে ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করায় যুবক গ্রেফতার নীলফামারীতে বাংলাদেশ পুলিশ সার্ভিস এসোসিয়েশন এর উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ ডোমারে ৭০ পিচ টাপেন্টাডল ট্যাবলেটসহ ২ যুবক গ্রেফতার নীলফামারীতে “এক্সেল রোড কন্ট্রোল স্টেশন” স্থাপনের প্রতিবাদে মানববন্ধন  বান্দরবানে সেনাবাহিনীর সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে কেএনএফ সন্ত্রাসী নিহত রুমায় কেএনএফ আতঙ্কে বাড়ি ছাড়ছেন গ্রামবাসী বান্দরবানে বিস্তীর্ণ মাঠ জুড়ে সরিষার আবাদ নিপাহ ভাইরাসে মারা গেছেন ৫ জন, আক্রান্ত ৮: স্বাস্থ্যমন্ত্রী সরকারকে বিদ্যুৎ, গ্যাস ও তেলের দাম বাড়ানোর ক্ষমতা দিয়ে বিল পাস শর্ত সাপেক্ষে হিন্দি সিনেমা আমদানির পক্ষে: নিপুণ

হদিস নেই ভিজিডি কর্মসূচীর ১৮৭ কার্ডধারীর সঞ্চয়ের ২ লাখ টাকা

  • আপডেট টাইম :: সোমবার, ২৬ ডিসেম্বর, ২০২২

নালিতাবাড়ী (শেরপুর) : সরকারের দুস্থ মহিলা উন্নয়ন (ভার্নারেবল গ্রুপ ডেভেলপমেন্ট-ভিজিডি) কর্মসূচীর আওতায় থাকা ১৮৭ জন কার্ডধারীর (উপকারভোগীর) সঞ্চয়ের প্রায় দুই লাখ টাকার হদিস পাওয়া যাচ্ছে না। নিয়মানুযায়ী ব্যাংক এশিয়ার স্থানীয় শাখায় উপকারভোগীদের নিজ নামে একাউন্ট খোলে সঞ্চয় করার কথা থাকলেও তৎকালীন চেয়ারম্যান এ টাকা আত্মসাত করেছেন বলে অভিযোগ ওঠেছে। এমন ঘটনা ঘটেছে শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার রূপনারায়নকুড়া ইউনিয়নে।

ভুক্তভোগী উপকারভোগী সূত্রে জানা গেছে, সরকারের মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর কর্তৃক পরিচালিত দুস্থ মহিলা উন্নয়ন (ভিজিডি) কর্মসূচির আওতায় ২০২১-২২ অর্থ বছরে ১৮৭ জন দুস্থ নারীকে রূপনারায়নকুড়া ইউনিয়ন পরিষদ থেকে কার্ড প্রদান করা হয়। কার্ডধারীরা জনপ্রতি প্রতিমাসে ৩০ কেজি করে বিনামূল্যে চাল প্রাপ্তির বিপরীতে নিজ নামে ব্যাংক এশিয়ায় একাউন্ট খোলে প্রতিমাসে ২শ টাকা করে সঞ্চয় রাখার কথা। কিন্তু অনিয়মিত সঞ্চয় এবং সঞ্চয় উত্তোলন ও প্রশিক্ষণ প্রদানকারী এনজিও’র খামখেয়ালীপনায় গেল এক বছরে ৬ মাসের ১২শ টাকা জমা করেন উপকারভোগীরা। কেউ বা এক হাজার টাকা জমা দেন। ফলে কারও ১২শ টাকা কারও বা এক হাজার টাকা সঞ্চয়ী বইতে তোলা হয়। কিন্তু উপকারভোগীদের দেওয়া ওইসব টাকা এনজিও প্রতিনিধি না থাকায় তার পরিবর্তে তৎকালীন ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান নিজে উত্তোলন করে তা ব্যাংকে জমা করেননি।

এদিকে গত ২১ ডিসেম্বর বুধবার ২০২১-২২ অর্থ বছরের ভিজিডি কর্মসূচির কার্যক্রম শেষ হয়। বৃহস্পতিবার কার্ডধারীরা তাদের সঞ্চয়ের টাকা নিতে ইউনিয়ন পরিষদে যান। এসময় বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান মঞ্জুরুল-আল-মামুন সঞ্চয়ের টাকা উত্তোলন করতে কার্ডধারীদের ব্যাংক এশিয়ায় খোঁজ নিতে বলেন। চেয়ারম্যানের পরামর্শ অনুযায়ী ভুক্তভোগীরা ব্যাংক এশিয়ায় গেলে দায়িত্বরত কর্মকর্তা কার্ডধারীদের অর্থ জমা দেওয়া হয়নি বলে জানান। পরে ভুক্তভোগীরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানালে তিনি বিষয়টি খোঁজ নিতে মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কাছে পাঠান। কিন্তু মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যালয়ে গিয়েও এর কোন সুরাহা তারা না পেয়ে প্রেসক্লাবে এসে অভিযোগ করেন।

বাগিচাপুর গ্রামের ভিজিডি কার্ডধারী মনোয়ারা খাতুন অভিযোগ করেন, সঞ্চয় হিসেবে তৎকালীন চেয়ারম্যান মিজানের কাছে এক হাজার টাকা জমা দেন তিনি। কিন্তু এখন ওই টাকা কোথাও জমা করা হয়নি বলে তিনি জানতে পারেন।

গাছগড়া গ্রামের কার্ডধারী মর্জিনার স্বামী জিয়ারুল অভিযোগ করেন, ২০২১ সালে ভিজিডি কার্ড করে চেয়ারম্যানের কাছে বিভিন্ন সময় সঞ্চয় হিসেবে ১২শ টাকা জমা দিয়েছি। ওই টাকা ব্যাংকে জমা দেওয়ার কথা থাকলেও চেয়ারম্যান টাকা জমা দেননি। ফলে এখন আমরা টাকা ফেরত পাচ্ছি না।

কাউয়াকুড়ি গ্রামের জুলেখা জানান, তিনিও সঞ্চয় হিসেবে এক হাজার টাকা মিজান চেয়ারম্যানের কাছে জমা দিয়েছেন। কিন্তু এখন এক টাকাও তার একাউন্টে নেই।

এ ব্যাপারে তৎকালীন চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান জানান, টাকা উত্তোলন করে ব্যাংকে জমা দিতে সচিবের কাছে দেওয়া হয়েছে। তবে তার কাছে কয়েকজনের সঞ্চয়ের টাকা রয়েছে। সেই টাকা তিনি দ্রুত দিয়ে দিবেন।

এ ব্যাপারে তৎকালীন দায়িত্বে থাকা ইউপি সচিব শফিকুল ইসলাম বলেন, ভিজিডি কার্ডধারীদের সঞ্চয়ের টাকা চেয়ারম্যান নিজে উত্তোলন করেছেন। কার্ডের পেছনে চেয়ারম্যনের স্বাক্ষর রয়েছে। আমাকে কোন টাকা চেয়ারম্যান দেননি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা খৃষ্টফার হিমেল রিছিল জানান, বিষয়টি জেনেছি। ভিজিডি কার্ডধারী ভুক্তভোগীরা যদি লিখিত অভিযোগ দেন তবে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2011-2020 BanglarKagoj.Net
Theme Developed By ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!