1. monirsherpur1981@gmail.com : banglar kagoj : banglar kagoj
  2. admin@banglarkagoj.net : admin :
মঙ্গলবার, ১৫ জুন ২০২১, ০৭:১৬ পূর্বাহ্ন

রশিদ খানের অলরাউন্ড নৈপুণ্যে লাহোরের অবিশ্বাস্য জয়

  • আপডেট টাইম :: বৃহস্পতিবার, ১০ জুন, ২০২১

স্পোর্টস ডেস্ক : পাকিস্তান সুপার লিগের বাকি অংশ শুরুর প্রথমদিনই ব্যাটে-বলে উজ্জ্বল আফগানিস্তানের তারকা লেগস্পিনার রশিদ খান। মূল পরিচয় বোলার হলেও, নিখাঁদ অলরাউন্ডারের মতোই লাহোর কালান্দার্সকে জিতিয়েছেন অবিশ্বাস্য এক ম্যাচ। রীতিমতো ইসলামাবাদ ইউনাইটেডের পকেটে থাকা ম্যাচটি জিতে নিয়েছে লাহোর।

আবুধাবির শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে আগে ব্যাট করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৪৩ রান করে ইসলামাবাদ। কিপটে বোলিংয়ে ৪ ওভারে মাত্র ৯ রান খরচায় ১ উইকেট নেন রশিদ। পরে ১৪৪ রানের লক্ষ্য শেষ বলে গিয়ে তাড়া করে লাহোর। যেখানে রশিদের অবদান ৫ বলে ১৫ রানের ঝড়ো ক্যামিও।

ম্যাচ জিততে শেষ দুই ওভারে লাহোরের প্রয়োজন ছিল ২৩ রান। হাসান আলির করা সেই ওভারের প্রথম পাঁচ বলে আসে মাত্র ১ রান। চতুর্থ বলে বেন ডাঙ্ক আউট হলে উইকেটে আসেন রশিদ। তবে থাকেন নন-স্ট্রাইকে। শেষ বলে ছক্কা মেরে সমীকরণটা ছয় বলে ১৬ রানে নামিয়ে আনেন টিম ডেভিড।

শেষ ওভারের প্রথম বলে প্রথমবারের মতো স্ট্রাইক পান রশিদ খান। অন্যদিকে ম্যাচে নিজের প্রথম ওভার করতে আসেন হুসাইন তালাত। যেখানে জয়টা রশিদেরই। প্রথম তিন বলে টানা তিন চার হাঁকিয়ে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিজেদের হাতে নিয়ে নেন আফগান লেগস্পিনার।

বাকি তিন বলে প্রয়োজন ছিল চার রান। চতুর্থ বলে ২ এবং পঞ্চম বলে ১ রান নিয়ে স্কোর সমান করেন রশিদ। আর শেষ বলে টপ এজ থেকে রান নিয়ে ম্যাচ শেষ করেন টিম ডেভিড। রশিদ ৫ বলে ১৫ এবং ডেভিড ১৫ বলে ২৩ রানে অপরাজিত থাকেন। লাহোর পায় ৫ উইকেটের জয়।

ইসলামাবাদের করা ১৪৩ রানের জবাবে খেলতে নেমে লাহোরের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩০ বলে ৪০ রান করেন অধিনায়ক সোহেল আখতার। এছাড়া মোহাম্মদ হাফিজের ব্যাট থেকে আসে ২৫ বলে ২৯ রান। তাদের এই চেষ্টা বিফলেই যেত, যদি না শেষ ওভারে ঝড় তুলতেন রশিদ। তাই ম্যাচসেরার পুরস্কার নির্ধারণেও কোনো সমস্যা হয়নি সংশ্লিষ্টদের।

ম্যাচে টস হেরে আগে ব্যাট করতে হয়েছে ইসলামাবাদকে। ব্যাট হাতে কেউই তেমন কিছু করতে পারেননি। সর্বোচ্চ ২৭ রান আসে আট নম্বরে নামা ফাহিম আশরাফের ব্যাট থেকে। এছাড়া উসমান খাজা ১৮, হুদাইন তালাত ১৪ ও হাসান আলি করেন ১৪ রান। দুই অঙ্ক ছুঁতে পেরেছেন আরও তিন ব্যাটসম্যান। কিন্তু দলের সংগ্রহ বড় হয়নি।

বল হাতে লাহোরের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট নিয়েছেন জেমস ফকনার। আহমেদ দানিয়াল ও হারিস রউফের শিকার ২টি করে উইকেট। মাত্র ১ উইকেট পেলেও, চার ওভারে ৯ রান খরচায় ইসলামাবাদকে বেঁধে রাখার কাজটা দারুণভাবেই করেছেন ম্যাচের সেরা খেলোয়াড় রশিদ খান।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2011-2020 BanglarKagoj.Net
Theme Developed By ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!