1. monirsherpur1981@gmail.com : banglar kagoj : banglar kagoj
  2. admin@banglarkagoj.net : admin :
সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ০৪:০৮ পূর্বাহ্ন

সত্য তেঁতো হলেও সত্য

  • আপডেট টাইম :: বুধবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১

– মনিরুল ইসলাম মনির –
আমি আগে থেকেই জানতাম, মরিচপুরান ইউনিয়নের নির্বাচনী প্রতিবেদন করার পর সবচেয়ে বেশি প্রতিক্রিয়া হবে। আমার স্বার্থেও আঘাত আসবে। তাই এ ইউনিয়নটিতে সময় বেশি নিয়েছি, মাঠ ঘুরেছি বেশি। এখানে বলাচলে এক ডজন প্রার্থী। প্রার্থীগণ নিজেদের যোগ্য ও জনপ্রিয় মনে করেন বলেই তারা প্রার্থী হয়েছেন বা মনোনয়ন প্রত্যাশি হয়েছেন। খুব স্বাভাবিক, এটি তাদের নাগরিক অধিকার।
কিন্তু বাস্তবতা হলো, এখানে অনেইে কমবেশি ভোটারদের আগ্রহে থাকলেও নানা কারণে সর্বক্ষেত্রে জনপ্রিয় একজনও নেই। তার মানে কি কেউ নির্বাচিত হবেন না? অবশ্যই হবেন। কথায় আছে ‘নাই মামার চেয়ে কানা মামা ভালো।’ যেহেতু জনপ্রিয় নেই, সেহেতু এসব প্রার্থীর মধ্য থেকেই তুলনামূলক পছন্দনীয় প্রার্থী ভোটাররা বেছে নেবেন অথবা তাদের জন্য জনপ্রতিনিধি নির্ধারিত করা হবে। হাস্যকর, অনেকেই আবার প্রচার-প্রচারণার প্রমাণ দিয়ে নিজেদের খুব জনপ্রিয় দেখানোর চেষ্টা করছেন। আরে ভাই, একজন সমালোচিত-অবহেলিত-বঞ্চিত লোকও যদি আপনার কাছে গিয়ে দোয়া চায়, কুশল বিনিময় করে আপনি ভদ্রতার কারণে তার সাথে ভাব বিনিময় করবেন। এর মানে কি এই যে, তিনি আপনাকে ভোট দিয়ে ফেলেছেন বা সমর্থন দিয়েছেন? বেকুবেরও একটা লিমিট থাকে।
জন্ম শহরে আসার পর হলেও মরিচপুরান ইউনিয়নে আমার আদি ভিটেবাড়ি। এখনও মাসে দুই-তিন বার যাতায়াত করি। জমিজমা রয়েছে, ঘরবাড়িও আছে। যারা প্রার্থী হয়েছেন নানাভাবেই অনেকেই আমার কাছের। তারপরও জনপ্রিয় প্রার্থীর সংকট কেন আমি প্রতিবেদনে উল্লেখ করলাম? এ প্রশ্নের জবাব খোঁজলে বুদ্ধিমানেরা সহজেই পেয়ে যাবেন। অনেকেই মনে করছেন, তিনি হয়ত খুব জনপ্রিয়। তাকে বলব, আপনি না দলের কেউ না ইউনিয়নের বিশেষ কেউ। দু-চার জন মানুষের পেছনে খরচ করে কিছু শুভাকাঙ্খী জুটিয়ে আর নির্বাচন এলে ঘরে ঘরে দোয়া চাইলেই চেয়ারম্যান হওয়া যায় না। নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে মাঠে নেমে দেখুন, সার্বিকভাবে আপনার মূল্যায়ন কতটুকু। একসময় এ ইউনিয়নে জনপ্রিয় ব্যক্তিরা নির্বাচিত হতেন। কিন্তু হালে তেমন মুখ আর চোখে পড়ে না ভোটারদের। যারা জনপ্রিয়তা ধরে রেখেছেন কিছুটা, তারা নিজেদের এলাকায় জনপ্রিয়। প্রকৃত জনপ্রিয় তিনিই যিনি পুরো ইউনিয়নের আনাচে-কানাচে মানুষের মনে জায়গা করে নিয়েছেন। প্রতিদ্বন্দ্বিতা আছে, প্রতিযোগিতাও আছে সবখানে। আবার সবখানে কমবেশি ভক্তও আছে- এমন প্রার্থীর সংখ্যা আশপাশের ইউনিয়ন থেকেই দেখে আসুন আপনারা। দূরে যাওয়ার কোন প্রয়োজন নেই। প্রতিবেশি প্রায় সবক’টি ইউনিয়নে একাধিক জনপ্রিয় প্রার্থী রয়েছেন। তাহলে মরিচপুরানের ভোটারদের হতাশা কেন? এর কারণ কি? ভোটারদের এত হতাশা আর কোন ইউনিয়নে এবার নেই, যতোটা মরিচপুরানে আছে। তারপরও বলব, সবাই ভালো, সবাই যোগ্য। এবার দেখা যাক দল এবং জনগণ কি মূল্যায়ন করে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2011-2020 BanglarKagoj.Net
Theme Developed By ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!