1. monirsherpur1981@gmail.com : banglar kagoj : banglar kagoj
  2. admin@banglarkagoj.net : admin :
রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ০৮:১৩ পূর্বাহ্ন

টেলর সুইফটের কনসার্টে ভক্তদের উন্মাদনা, ফের ভূমিকম্প!

  • আপডেট টাইম :: রবিবার, ১৬ জুন, ২০২৪
বিনোদন ডেস্ক : টেইলর সুইফট মানেই যেন রেকর্ড ভাঙা-গড়ার এক কারিগর! গত কয়েক বছর ধরেই ক্যারিয়ারের সোনালি সময় পার করছেন মার্কিন পপতারকা টেলর সুইফট। একের পর এক রেকর্ড গড়ছেন গায়িকা। তবে গায়িকার গানই শুধু রেকর্ড গড়ছে না, তার উপস্থিতিও গড়ছে একের পর এক রেকর্ড। সুইফটের কনসার্টে যেমন আছে সম্মানের রেকর্ড, তেমনি আছে ভয়েরও!

গত বছর টেলর সুইফটের কনসার্টে উপস্থিত মানুষের সংখ্যা এবং তাদের উন্মাদনায় রীতিমতো ভূমিকম্প হয়ে যায়।

5
এডিনবরার মারেফিল্ড স্টেডিয়ামে টেলর সুইফট

স্কটিশ রাজধানী এডিনব্রার মারেফিল্ড স্টেডিয়ামে ৭-৯ জুন হয়েছে টেলরের ‘দ্য এরাস ট্যুর’।

সাত দিন পর জানা যাচ্ছে, টেলরের শোয়ের জন্যই ফের হয়েছিল ভূমিকম্প। স্কটল্যান্ডের জাতীয় রাগবি দলের মাঠে আসা ৭৩ হাজার মানুষ টেলরের শোয়ের প্রথম রাতেই যা করে দিয়েছেন, তাতে কেঁপে গেছে স্টেডিয়াম। প্রায় ছয় কিলোমিটার দূরে ভূ-কম্পন অনুভূত হয়েছে। আর রিপোর্ট দিয়েছে ব্রিটিশ জিয়োলজিক্যাল সার্ভে (বিজিএস)।

তারা সিসমোগ্রাফিক প্য়াটার্ন খেয়াল করে দেখেছে যে টানা তিনরাতই এ রকম ভূমিকম্প হয়েছে।
কনসার্টে মানুষের উন্মাদনায় উঠেছিল ১৬০ বিট প্রতি মিনিটে। দর্শকের নাচানাচিতে ৮০ কিলোওয়াট শক্তি উৎপন্ন হয়েছিল। যা ১০ থেকে ১৬টি গাড়ির ব্য়াটারি চললে হয়। কম্পনের মাত্রা ন্য়ানোমিটারের মাত্রায় ছিল কখনো ২২.৮, কখনো ২৩.৩ তো কখনো ২৩.৪।‘রেডি ফর ইট’, ‘ক্রুয়েল সামার’ ও ‘শ্য়াম্পেন প্রবলেমস’ গানগুলো যখনই টেলর গেয়েছেন, তখনই ঝড় উঠেছে।

ইউএস ম্যাগাজিনের রিপোর্ট বলছে, এই ভূমিকম্প স্কটল্যান্ডেই প্রথম নয়। গত বছর টেলরের ‘দ্য এরাস ট্যুর’-এর সিটল ও লস অ্যাঞ্জেলেস পর্বেও জমি নড়ে গিয়েছিল। ভূ-কম্পনের মাত্রা কখনো ২.৩ ম্যাগনিটিউডও ছিল। এটাই টেলরের মহিমা। তবে টেলরভক্তরা বিষয়টিকে ‘আর্থকোয়েক’ অর্থাৎ ভূমিকম্প বলেন না। নাম দিয়েছেন ‘সুইফট-কোয়েক’ । এতেই বোঝা যায় যে টেলর কোন মাপের শিল্পী।টেলর গত বছরের ১৭ মার্চ থেকে শুরু করেছেন ম্যারাথন কনসার্ট ‘দ্য এরাস ট্যুর’। এক বছরেরও বেশি সময় ধরে চলা ট্যুরে টেলর পাঁচটি মহাদেশের ২২টি দেশ ঘুরে ১৩১টি শো করার পরিকল্পনা করেছেন। ২০১৮ সালে রেপুটেশন স্টেডিয়াম ট্যুরের পর এটাই টেলরের সবচেয়ে ব্যয়বহুল ট্যুর। টেলর এখনো পর্যন্ত মোট ১১টি অ্যালবাম প্রকাশ করেছেন। মূলত প্রতিটি অ্যালবামের বাছাই করা গানই গাইছেন ১২টি গ্র্যামি, ১৪টি এমটিভি ভিডিয়ো মিউজিক অ্যাওয়ার্ডের সঙ্গেই প্রায় শতাধিক গিনেস বিশ্বরেকর্ডধারী!

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2011-2020 BanglarKagoj.Net
Theme Developed By ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!